CC News

বাকের ভাই থেকে সংস্কৃতিমন্ত্রী

 
 

Baker Viঢাকা: দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে সংস্কৃতিমন্ত্রী হলেন জনপ্রিয় সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর। রোববার শপথ গ্রহণের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া সরকারের নতুন মন্ত্রিসভায় সদস্য হয়েছেন ৪৮ জন। এর মধ্যে ২৯ মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ১৭ এবং ২ জনকে উপমন্ত্রী করা হয়েছে। সে সূত্রেই জনপ্রিয় এ ব্যক্তিত্ব সংসদ সদস্য থেকে এবার পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করছেন। এদিন সন্ধ্যায় প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে মন্ত্রীদের দায়িত্ব বণ্টন করা হয়। এতে সংস্কৃতি মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান আসাদুজ্জামান নূর।

উল্লেখ্য, ১৯৪৬ সালের ৩১ অক্টোবর নীলফামারী জেলায় আসাদুজ্জামান নূর জন্মগ্রহণ করেন । তার বাবার আবু নাজিম মো. আলী এবং মা আমীনা বেগম। আসাদুজ্জামান নূরের স্ত্রী শাহীন আকতার পেশায় একজন ডাক্তার। তাদের সংসারে এক পুত্র এবং এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

মূলত বাংলাদেশ টেলিভিশনের নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমেই তিনি পরিচিতি লাভ করেছেন। ১৯৯০ দশকে বাংলাদেশের জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদের ‘কোথাও কেউ নেই` নামের একটি ধারাবাহিক নাটকে বাকের ভাই চরিত্রে অভিনয় করে তিনি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতির দায়িত্বও পালন করে আসছেন।

২০০১ এবং ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে নিলফামারী জেলা হতে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

ছাত্র অবস্থায় তিনি রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। ১৯৬২ সালে স্বৈরাচারী আইয়ুব খানের বিরুদ্ধে সব আন্দোলনে পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন আসাদুজ্জামন নূর। পরবর্তীতে ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। আসাদুজ্জামান নূর মুক্তিযুদ্ধে ৬নং সেক্টরে যুদ্ধ করেন। ১৯৯০ সালে স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন তিনি।

দেশ টিভির ‘কে হতে চায় কোটিপতি` অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন নাট্য ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর। এছাড়াও, দেশের নাট্যজগতে তিনি একজন কিংবদন্তী অভিনেতা হিসেবে পরিচিত।

দেশ টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আসাদুজ্জামান নূর এশিয়াটিক সোসাইটি, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, নাগরিক সহ অনেক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন।

বাংলামেইল

Print Friendly, PDF & Email