CC News

চিরিরবন্দরে গমের আবাদ বেড়েছে

 
 

চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দফায় দফায় তেল, সার ও কীটনাশকের মূল্য বৃদ্ধির কারণে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার চাষীরা এ বছর রবি ফসল গম চাষে ঝুঁকে পড়েছে। এ পর্যন্ত আবহাওয়া অনূকুলে থাকায় বাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষক ও কৃষি বিশেষজ্ঞরা। বাতাসের দোলায় দোল খাচ্ছে সবুজের সমারোহের গম ক্ষেত। উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে চলতি মৌসুমে ১২শ’ ৩০ হেক্টর জমিতে গম চাষের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।
উপজেলার কেষ্টহরি গ্রামের কৃষক সুবোধ চন্দ্র রায় জানান, গত দু’বার ইরি ধান চাষ করে লাভ তো দুরের কথা মূলধন ঘরে তোলা দুস্কর হয়েছিল। তাই এ বছর ২ বিঘা জমিতে গম লাগিয়েছি। গম চাষে দু-এক বার সেচ দিলে হয়, সার কম লাগে এবং কীটনাশকের ব্যবহার নেই বললেই চলে। একটু পরিচর্যা করলে বাম্পার ফলন পাওয়া যায় এবং দামও পাওয়া যায় বেশ ভালো। জোত সাতনালা গ্রামের বর্গা চাষী হামিদুল ইসলাম জানান, আমার নিজস্ব কোন জমি-জমা নেই। অন্যের জমি বর্গা নিয়ে চাষাবাদ করি। প্রতি জমিতে বছরে তিন ফসল তুলি। বোরো আমন তুলার পর গম চাষ করেছি, গম তোলার পর পাট চাষ করবো।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার মোহন্ত জানিয়েছে, চিরিরবন্দরের মাটি গম চাষের জন্য উপযোগী। গত বছর এ উপজেলায় গমের বাম্পার ফলন হয়েছে। দাম ও পেয়েছে বেশ ভালো। এ বছর আশানুরুপ গমের চাষ হয়েছে। উপজেলার কৃষকরা ধানের বদলে চলতি মৌসুমে ব্যাপক হারে গম চাষ করেছে। বর্তমান আবহাওয়া গম চাষের জন্য অনূকূলে রয়েছে। এরুপ আবহাওয়া থাকলে গমের বাম্পার ফলনের আশা করছে সংশ্লিষ্টরা।

Print Friendly, PDF & Email