CC News

জামায়াত নিয়ে ব্যাখ্যা দেবেন খালেদা

 
 

Khalada-7ঢাকা: হরতাল-অবরোধের মতো কোনো কর্মসূচি আর নয়। এবার সংলাপ ও সহনীয় কর্মসূচির মাধ্যমে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচন-প্রক্রিয়া শুরুর আহ্বান জানাবেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।
পাশাপাশি জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্কের ব্যাপারেও দল ও জোটের অবস্থান ব্যাখ্যা করবেন তিনি। একই সঙ্গে ৫ জানুয়ারির নির্বাচন নিয়ে জোটের পর্যবেক্ষণও তুলে ধরবেন বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে। এসব ছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনসহ বেশ কিছু বিষয়ে জাতির সামনে দল ও জোটের অবস্থান ব্যাখ্যা করার কথা রয়েছে।
মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, বুধবার বিকেল চারটায় গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিনে হবে এ সংবাদ সম্মেলন। এতে দেশি-বিদেশি সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। দেশের বিরাজমান পরিস্থিতিতে বিএনপি নেত্রীর এই সংবাদ সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতের বৈঠকে জোটের একাধিক নেতা অবরোধ-হরতাল অব্যাহত রাখার পক্ষে মত দিলেও সেদিকে আপাতত যাচ্ছেন না বিএনপি নেত্রী। বিএনপির দলীয় সূত্রগুলো বলছে, অবরোধ-হরতাল করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হলেও কার্যত কোনো লাভ হয়নি তাদের। এজন্য আন্দোলনে ভিন্নতা এনে সভা-সমাবেশ, মিছিল-মিটিংয়ের মতো সহনীয় কর্মসূচি দিয়ে জনসম্পৃক্ততা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি জোট। এতে যেমন জোট আন্দোলনে থাকবে তেমনি জনদুর্ভোগ না থাকায় জনমতও বাড়বে জোটের পক্ষে। তবে বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে এ-সংক্রান্ত আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা হবে না।
সূত্রগুলো আরও বলছে, গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে জনগণের মতামতের যে বাস্তব প্রতিফলন হয়নি সে বিষয়টি সংবাদ সম্মেলনে জোরালোভাবে তুলে ধরে বক্তব্য দেবেন খালেদা জিয়া। এই নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত সরকারের প্রতি অনাস্থা জানাতেও তিনি জনগণের প্রতি আহ্বান জানাবেন। মার্চ ফর ডেমোক্রেসি কর্মসূচিতে তাকে যেতে না দেওয়া এবং গৃহবন্দী করে রাখার বিষয়গুলোও তুলে ধরে খালেদা জিয়া বিচারের ভার দেবেন দেশের মানুষের কাছে।
সংবাদ সম্মেলনে জামায়াতের সঙ্গে বিএনপি ও জোটের সম্পর্কের ব্যাপারেও বক্তব্য তুলে ধরা হবে। এ ক্ষেত্রে জামায়াতকে এক্ষুনি ত্যাগ করার মতো কোনো ঘোষণা দেওয়া হবে না। তবে জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ না করার ব্যাপারে বিএনপির দলীয় যুক্তি তুলে ধরবেন খালেদা জিয়া।
এ প্রসঙ্গে জোটের অন্যতম শরিক এলডিপির চেয়ারম্যান অলি আহমদ বলেন, ‘সোমবার রাতে জোটের বৈঠকে নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আন্দোলনের সফলতা-ব্যর্থতা নিয়েও সবাই খোলাখুলি কথা বলেছেন। আন্দোলন ব্যর্থ হয়েছে, এটা মনে করে না ১৮ দলীয় জোট। বরং ভোটে জনগণের অংশগ্রহণ না-করাটাই আন্দোলনের সফলতা বলে মনে করি আমরা। বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে এসব বিষয়ই তুলে ধরবেন জোটনেত্রী। পাশাপাশি গঠিত সরকারকেও আনুষ্ঠানিকভাবে অবৈধ ঘোষণা করা হবে।’ অলি আহমদ বলেন, সংবাদ সম্মেলনে বিদেশি বন্ধুরাষ্ট্রকেও আহ্বান জানানো হবে এই সরকারকে কোনো প্রকার সহযোগিতা না করতে।
উল্লেখ্য, গত ২৪ ডিসেম্বর গুলশানের নিজ কার্যালয়ে খালেদা জিয়া সর্বশেষ সংবাদ সম্মেলন করে মার্চ ফর ডেমোক্রেসি কর্মসূচি ঘোষণা করেছিলেন। সূত্র: রাইজিংবিডি

Print Friendly, PDF & Email