CC News

নীলফামারীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা

 
 

Oniomনীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারী সদর উপজেলার টুপামারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মছিরত আলী শাহ ফকিরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন খাত থেকে সাড়ে আট লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অনাস্থা এনেছেন পরিষদের সদস্যরা।
বিষয়টি তদন্তের জন্য সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হলেও আজও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।
টুপামারী ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য সামসুদ্দোহা অভিযোগ করে বলেন, চেয়ারম্যান মছিরত আলী শাহ ফকির পরিষদের বিভিন্ন খাত থেকে গত ২০১১-১২ অর্থ বছরে তিন লাখ ৩৩হাজার পাঁচশ এক টাকা ও ’১২-১৩ অর্থ বছরে পাঁচ লাখ ১৬ হাজার একশ’৯০ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাত করেন। উত্তোলিত টাকা দিয়ে ইউনিয়নের উন্নয়নে কোন কাজ না করেই ভুয়া ভাউচারের মাধ্যমে তিনি আত্মাসাত করেন। অথচ এ ব্যাপারে পরিষদের সদস্যরা কিছুই জানেন না।
পরিষদের ১০জন সদস্য গত বছরের ২৪অক্টোবর রেজুলেশন করে টাকা আত্মসাতের দায়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা এনে জেলা প্রশাসক, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপ-পরিচালক স্থানীয় সরকার বিভাগকে অনুলিপি প্রদান করে।
নীলফামারী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেত আলী অনাস্থা প্রস্তাবটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য মৎস্য কর্মকর্তা আব্দুল আজিজকে দায়িত্ব দেন। তিনি গত বছরের ২৩ডিসেম্বর অনাস্থার তদন্ত করলেও অজ্ঞাত কারনে আজও প্রতিবেদন জমা দেননি।
এ ব্যাপারে মৎস্য কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ জানান, অনাস্থা প্রস্তাবের তদন্ত করা হয়েছে। চেয়ারম্যানের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না পাওয়ায় প্রতিবেদন জমা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।

Print Friendly, PDF & Email