CC News

ঠাকুরগাঁওয়ে আগাম আলু উত্তোলনে ব্যস্ত চাষীরা

 
 
potato
ঠাকুরগাঁও: শীতকালীন সবজি আলু উত্তোলন শুরু হয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ে। চাষীরা এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন আলু উত্তোলনে। কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁওয়ের চাষীরা বিভিন্ন স্বল্প মেয়াদী জাতের আমন ধানের চাষ করেছিলেন প্রায় ১৩ হাজার হেক্টর। ঐ জমিতে ধান সংগ্রহ করে অনেক চাষী আলু লাগিয়েছেন। পতিত জমিতে আগাম আলুর চাষ করে অনেক চাষী লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখলেও আলু বিক্রি করে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। কারণ হরতাল ও অবরোধের মত কর্মসূচি।
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মাদারগঞ্জ এলাকার কৃষক শাহাজান বলেন, ঠাকুরগাঁও সুগার মিলের ভাতারমারী ফার্মের (ইক্ষু খামার) ৪০ একর জমি লীজ নিয়ে আলু লাগাই। বর্তমানে আলুর অবস্থা ভালো। কিছুদিনের মধ্যে বাজার জাত করবো। ভালো দাম পেলে লাভবান হতে পারবো। তবে হরতাল ও অবরোধ থাকলে খরচের টাকাও তুলতে পারবো না।
সদর উপজেলার হরিহরপুর গ্রামের কৃষক সুজাত বলেন, পটুয়াডাঙ্গীতে ২০ একর জমিতে গ্যানোলা জাতের আলু চাষ করেছি। কিছু দিনের মধ্যে বাজারজাত করবো। হরতাল অবরোধ না থাকলে ভাল দামে বিক্রি করলে লাভবান হতে পারবো। আলু তুলে ঐ জমিতে আবার ভুট্টার চাষ করবো।
তিনি বলেন, ৫ একর জমিতে বীজ আলুর চাষ করেছি। বর্তমানে সেগুলোতে সার ও সেচ দিয়ে পরিচর্যা করছি। এই সব আলু হিমাগারে সংরক্ষণ করবো।
একই এলাকার কৃষক আনারুল ইসলাম বলেন, আগাম আলু চাষ করে প্রথমে ৩০-৩২ টাকা দরে বিক্রি করলেও বর্তমানে ৯-১০ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে।
কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বছর ঠাকুরগাঁওয়ে ৩২ হাজার হেক্টর জমিতে আলু চাষ হলেও এ বছর ২৭ হাজার ৫ শ ৫০ হেক্টর জমিতে আলুর চাষ হয়েছে। এর মধ্যে ৩ হাজার হেক্টর আগাম জাতের স্বল্প মেয়াদী আলুর চাষ হয়েছে। ইতোমধ্যে যা বাজারজাত করতে শুরু করেছেন চাষীরা।
ঠাকুরগাঁওয়ে বেশি পরিমাণ আলু চাষ হলেও প্রথম আগাম লাগানো আলু প্রথমেই সবজি হিসাবে বিক্রি হয়ে যায় ও পরে লাগানো আলু হিমাগারে সংরক্ষণ করে কৃষক ও ব্যবসায়িরা।
আলুর বিভিন্ন উচ্চ ফলনশীল জাত কার্ডিনাল, ডায়মন্ড, কারেজ, দেশী জাতের মধ্যে লাল পাখরি, চলি¬শা, পাখরি লতা ইত্যাদি থাকলেও বর্তমানে স্বল্প মেয়াদী গ্র্যানুলা জাতের আলু চাষে ঝুঁকেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের চাষীরা। এ জাতের আলু ৫৫ থেকে ৬০ দিনের মধ্যে বাজারজাত করা যায়। তাছাড়া গ্র্যানুলা গোল সাদা আলু নতুন হিসেবে বাজারেও চাহিদা ভাল থাকে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বেলায়েত হোসেন বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ের চাষীরা আগাম আলু ভাল দামে বাজারজাত করতে শুরু করেছেন। আলু তুলে আবার ঐ জমিতে ভুট্টাসহ অন্যান্য ফসলের চাষ করবেন।

বেঙ্গলিনিউজ
Print Friendly, PDF & Email