CC News

সংসদের প্রথম অধিবেশনেই হরতাল নিষিদ্ধ

 
 

Ranggaরংপুর: দশম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনেই হরতাল নিষিদ্ধ করে আইন পাস করা হবে বলে জানিয়েছেন নবনিযুক্ত পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা।

রোববার দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলার আইন-শৃংখলার উন্নয়ন ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, ‘হরতালের নামে গাড়িতে আগুন দেয়া, মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে দেশে আর নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না। সংসদের প্রথম অধিবেশনেই চিরদিনের জন্য বাংলাদেশে হরতাল নিষিদ্ধ করার আইন করার উদ্যেগ নেয়া হবে এবং তা পাস করার ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

হরতাল পালন করতে কাউকে বাধ্য করার অধিকার কারো নেই উল্লেখ করে মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘হরতাল ডাকা যেমন রাজনৈতিক দলের গণতান্ত্রিক অধিকার, তেমনি হরতাল পালন করা না করাও জনগণের মৌলিক অধিকার। কাউকেই হরতাল করতে বাধ্য করার কোনো অধিকার কারও নেই।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘হরতালের নামে দেশে যা চলছে তা কোনো অবস্থাতেই মেনে নেয়া যায়না। বিরোধীদলের হরতাল ও অবরোধে সহিংসতার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে রাঙ্গা বলেন, ‘হরতালের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারার যে রাজনীতি তারা শুরু করেছে তাতে দেশের জনগণ এতটাই ক্ষুব্ধ হয়েছে যে তাদের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নিয়েছে। আগামী নির্বাচনে তারা তাদের অপকর্মের ফল হাড়ে হাড়ে ভোগ করবে।’

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর জেলা জাপার সভাপতি মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘আমরা জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য হিসেবে সংসদের গঠনমূলক বিরোধীদলের ভূমিকা পালন করবো। সরকারের ভালো কাজের প্রশংসা করবো, খারাপ কাজের বিরোধীতা করবো।’

প্রধান বিরোধীদলী বিএনপির সমালোচনা করে নবনিযুক্ত এ মন্ত্রী বলেন, তাদের মতো শুধু বেতন-ভাতা নেবো, বিদেশে ভ্রমণে যাবো আর সংসদে যাবো না এমন রীতি জাতীয় পার্টি কখনই গ্রহণ করবে না।’

এসময় মন্ত্রী রংপুরের উন্নয়নে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান। রংপুর জেলা প্রশাসক ফরিদ আহাম্মেদের সভাপতিত্বে সভায় রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র শরফ উদ্দিন আহাম্মেদ ঝন্টুসহ সব উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রশাসনের সর্বস্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলামেইল

Print Friendly, PDF & Email