CC News

নারীসহ ৩ আফ্রিকান নাগরিক গ্রেপ্তার

 
 

Arrestedসিসি নিউজ: রাজধানীর উত্তরা থেকে আফ্রিকান তিন নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। এদের মধ্যে দুজন নারী। মঙ্গলবার রাতে উত্তরার ৫ নম্বর সেক্টরের ৪ নম্বর রোডের ৪৪ নম্বর বাসায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের দেওয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোয়েন্দা পুলিশের (উত্তর) উপকমিশনার শেখ নাজমুল আলমের তত্ত্বাবধানে এই অভিযান পরিচালিত হয়। গ্রেপ্তার হওয়া তিনজন হলেন পারেজ ওয়াই পারেজ ইফরায়েন (৩৭), সেনকারিন নাট্টি (৩৬) ও মিকু সানডিও নাথালি লাওরেল (২১)। দুই নারী  ক্যামেরুনের নাগরিক। আর অন্য একজন হচ্ছেন গুয়েতেমালার নাগরিক। তাঁদের কাছ থেকে জাল ডলার তৈরির ৩০ বান্ডিল কাগজ, ডলার তৈরির নির্দেশিকা, সাদা প্লাস্টিক বোতলে তরল পদার্থ পাওয়া গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানান, তাঁরা জাল ডলার তৈরির আন্তর্জাতিক চক্রের সঙ্গে জড়িত।

এ বিষয়ে বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ন-কমিশনার মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য দেন। মনিরুল ইসলাম বলেন, গত বছরের অক্টোবরে ইন্টারপোল থেকে জাল টাকা তৈরির চক্র এদেশে অবস্থান করে বলে সতর্ক করে একটি চিঠি পাঠিয়েছিল। চিঠি প্রাপ্তির পর থেকেই গোয়েন্দা পুলিশ এ চক্রের সন্ধানে নামে। এরই প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার নাজমুল আলমের তত্ত্বাবধানে উপ-পুলিশ কমিশনার মাহফুজুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি দল উত্তরার ৫ নম্বর সেক্টরের ৪ নম্বর রোডের ৪৪ নম্বও বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তিন বিদেশি নাগরিককে গ্রেপ্তার করে।

যুগ্ন-কমিশনার বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা জানিয়েছে, ট্যুরিস্ট ভিসায় তিন মাস আগে এদেশে আসে তারা। বৈধ পাসপোর্ট নিয়ে এদেশে এসে তারা জাল ডলার তৈরি করে প্রতারণা করার জন্য পার্টি খুঁজছিল। কিন্তু কারো সঙ্গে প্রতারণা করতে পারেনি। তবে পুলিশ তাদের কথা আমলে না নিয়ে তাদের আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ডে এনে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

মনিরুল আরো বলেন, এর আগেও কিছু বিদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে তাদের কাছ থেকে পাসপোর্ট জব্দ করা যায়নি। হয়তো সে সময তারা পাসপোর্টগুলো ছিড়ে ফেলেছিল। কিন্তু উত্তরা থেকে গ্রেপ্তার হওয়া বিদেশিদের কাছ থেকে পাসপোর্ট পাওয়া গেছে। এ কারণে এদের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া বিদেশিরা ইংরেজিতে কথা বলতে পারলেও তারা তা বলেন। এ কারণে ভাষাগত দিক থেকে তদন্তে কিছুটা ব্যাঘাত ঘটে। তবে তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, সবকিছুই পুলিশ ওভারকাম করতে পারবে।

Print Friendly, PDF & Email