CC News

বদরগঞ্জে কিশোর মাসুদের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

 
 

Badarganj Photo-01বদরগঞ্জ(রংপুর) প্রতিনিধি: রংপুরের বদরগঞ্জে অপহরনের ৫ দিন পর কিশোর মাসুদের(১৪) গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার সকালে রংপুর সদর উপজেলার লাহিড়ীরহাট এলাকার কলাখামার এলাকার বাঁশঝাড় থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশের পাশে একটি ধারালো ছুড়ি পাওয়া যায়। নিহত মাসুদ রানা বদরগঞ্জ উপজেলার কিসামত বসন্তপুর বিন্নাকুড়ি গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে। গত বৃহস্পতিবার তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। এব্যাপারে বদরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত ১৮ জানুয়ারী শনিবার বিকালে মাসুদ রানা তার সহপাটিদের সঙ্গে খেলতে যায়। ওইদিন সন্ধ্যার পর থেকে সে নিখোঁজ হয়। কিশোর মাসুদ নিখোঁজের ঘটনায় তার মা’ মাসুদা বেগমসহ আত্বীয় স্বজনরা তাকে খোঁজ করতে থাকে। এক পর্যায়ে অজ্ঞাতনামা মোবাইল ফোনে দূর্বৃত্তরা এক লাখ টাকার মুক্তিপণ দাবী করে তার আত্বীয় স্বজনদের কাছে। ওই টাকা দিতে না পরায় এর পাঁচদিন পর গত বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর সদর উপজেলার লাহিড়ীরহাট এলাকার কলাখামার বাঁশঝাড়ে ইক্ষু পাতার স্তুপের ভেতরে জনৈক এক মহিলা পাতা-খড়ি সংগ্রহ করতে গিয়ে ওই কিশোরের  লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের খবর দেয়। পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে মাসুদের আত্মীয়-স্বজন তাকে সনাক্ত করে। ওই দিন সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে থানা পুলিশ মাসুদ রানার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মর্গে প্রেরন করে। মাসুদ রানার মা মাসুদা বেগম বলেন, ‘বাবা কায় শক্রতা করি মোর নিষ্পাপ ছইলটাক মারি ফেলাইলো? তোরা মোর ছইলের খুনিদের ধরি দেও।
বদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) জাহিদুর রহমান চৌধুরী বলেন, হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে রংপুর সদর এলাকায়। এ ব্যাপারে বদরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email