CC News

বাংলাদেশে মধ্যবর্তী নির্বাচন হতে পারে : কাশ্মীর টাইমস

 
 

56422_44646ঢাকা : বাংলাদেশে মধ্যবর্তী নির্বাচন হতে পারে বলে মন্তব্য করেছে কাশ্মীর টাইমস। ‘বাংলাদেশ মে ফেইস মিড-টার্ম ইলেকশনস’ শিরোনামে শুক্রবার পত্রিকাটিতে প্রকাশিত এক মন্তব্য প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়।
মন্তব্য প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধান বিরোধী দল বিএনপি ও তার শরিক জামায়াতে ইসলামীর নির্বাচন বর্জনের ভেতরেই ৫ জানুয়ারির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আর এ বয়কটের মধ্যে দশম সংসদে বিজয় লাভ করে শাসক দল আওয়ামী লীগ।
আওয়ামী লীগের এ বিজয় সমাদৃত হয়নি উল্লেখ করে প্রতিবেদনে বলা হয়, ভোটারদের কম উপস্থিতি আর ব্যাপক সহিংসতার ভেতর এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ফলে এ নির্বাচনে শাসক দলের বিজয় এতোটা সমাদৃত নয়।
এতে বলা হয়, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনের আগে সংলাপ ও সমঝোতার আহ্বান জানান।
তত্ত্বাবধায়ক প্রসঙ্গে প্রতিবেদনে বলা হয়, বিএনপি নেতৃত্বাধীন বিরোধী দল সরকারের সর্বদলীয় সরকারের দেয়া প্রস্তাবনা নাকচ করে দেয়। তারা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে তাদের আন্দোলন অব্যাহত রাখে। তারা শেখ হাসিনা সরকারের পদত্যাগ দাবি করে ও নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়কের দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত রাখে। ২০১০ সালে আওয়ামী লীগ সরকার সংবিধান থেকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে দেয়।
নির্বাচন প্রসঙ্গে বলা হয়, আন্তর্জাতিক মহল বিরোধী দলবিহীন এ নির্বাচন প্রহসন বলে উল্লেখ করেছে।  বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনকে প্রহসন অ্যাখ্যা দিয়ে শেখ হাসিনার পদত্যাগ ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।
প্রতিবেদনে বাংলাদেশ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের অবস্থান প্রসঙ্গে বলা হয়, আশ্চর্যজনকভাবে বিএনপি ও জামায়াতকে সমর্থন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি বলছে এ নির্বাচনে জনআকাঙক্ষার প্রতিফলন ঘটেনি। তারা এ নির্বাচনে কোনো পর্যবেক্ষক পাঠায়নি।
অপরদিকে ভারত এ নির্বাচনকে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা বলেছে এবং বলেছে সংহিসতা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পথে অন্তরায়।
এতে বলা হয়, রাজনৈতিক অস্থিরতা বাংলাদেশকে আরো সংকটের গভীরে নিয়ে যাবে। এটি দেশের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করছে। সরকার ও বিরোধীদের উচিত চলমান সংকট উত্তরণে গঠনমূলক সংলাপে বসা।

Print Friendly, PDF & Email