CC News

মানবমস্তিষ্ক খেয়ে বিপাকে সিএনএন সাংবাদিক

 
 

সিসি ডেস্ক: মার্কিন টিভি সিএনএন সাংবাদিক গুরুর নির্দেশে মানব-মস্তিষ্ক খেয়েছিলেন। সেই ভিডিও সম্প্রচার করার পরে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন আমেরিকার হিন্দুরা। তাদের দাবি, ধর্মকে অবমাননা করতেই এই কাজ।

বারাণসীর শ্মশানে বসে অঘোরী সাধকদের সাক্ষাত্‍কার নিয়েছিলেন আমেরিকার সিএনএন চ্যানেলের সাংবাদিক জন্মসূত্রে ইরানি রেজা আসলান। সংখ্যালঘু ওই হিন্দু সাধক শ্রেণি সম্পর্কে বিস্তারিত গবেষণা করার জন্য তাদের সঙ্গে তন্ত্র সাধনায় অংশগ্রহণ করেন তিনি। যজ্ঞে বসার আগে রেজার শরীরে সত্‍কার করা মৃতদেহের ছাই মাখিয়ে দেয়া হয়। সাধনার অংশ হিসেবে তাকে মানুষের খুলিতে ঢালা মদ পান করতে দেন অঘোরীগুরু। তার পরে তার হাতে রান্না করা মানুষের ঘিলু তুলে তা খাওয়ার নির্দেশ দেন ওই সাধক। গুরুর নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করেন রেজা। আর এতেই ঘটে বিপত্তি।

সিএনএন চ্যানেলে সম্প্রচারিত সিরিজ ‘বিলিভার’-এর (বিশ্বাসী) সঞ্চালক তথা উপস্থাপক রেজা আসলানকে ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্কের ঝড়।

মার্কিন কংগ্রেসের একমাত্র হিন্দু সদস্য তথা হাওয়াই দ্বীপপঞ্জের ডেমোক্র্যাট সেনেটর তুলসি গ্যাবার্ড প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, হিন্দু ধর্ম সম্পর্কে আতঙ্ক ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে সিএনএন। হিন্দুদের সম্পর্কে বিকৃত তথ্য প্রচার করে আসলান চমক তৈরি করার চেষ্টা করেছেন। বেছে বেছে বিরলপ্রায় এক ভ্রাম্যমাণ সাধকশ্রেণিকে নিয়ে এমন বিভ্রান্তিকর প্রচারের ফলে সনাতন হিন্দু ধর্মের জাতিবিদ্বেষের বিরুদ্ধে লড়াই, কর্মযোগ ও পুনর্জন্মবাদের তত্ত্ব সম্পর্কে ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে।

সিএনএন প্রচারিত ভিডিও নিয়ে চটেছে আমেরিকার ইন্ডিয়ান পলিটিক্যাল অ্যাকশন কমিটিও। কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আমেরিকায় ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের উপর হিংসাত্মক আক্রমণের ঘটনা ক্রমে বাড়ছে। এই শো-তে হিন্দুদের অসভ্য নরখাদক জাতি হিসেবে দেখানো হচ্ছে। হিন্দু ধর্ম সম্পর্কে এমন বিকৃত প্রচার ক্ষতির পরিমাণ নিশ্চিত বাড়িয়ে দেবে।

জবাবে আসলান জানিয়েছেন, ক্যামেরায় এবং নেপথ্য ভাষণে বার বার বলেছি, ওরা সনাতন হিন্দু ধর্মের প্রতিনিধি নন। ওরা হলেন চরমপন্থী হিন্দু গোষ্ঠী, যারা হিন্দু ধর্মের মূল স্রোতকে ত্যাগ করেছেন। কিন্তু এই ব্যাখ্যা যথেষ্ট নয় বলে মনে করছেন বিক্ষুব্ধরা। অবিলম্বে ‘বিলিভার’ সম্প্রচার বন্ধ করতে সিএনএন-এর কাছে আবেদন জানিয়েছেন তারা।

Print Friendly