CC News

চিরিরবন্দরে বন্ধুত্বের ফাঁদে ফেলে দুই যুবক অপহরণ

 
 

চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুর চিরিরবন্দরে বন্ধুতের ফাঁদে ফেলে ২ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী। টাকা না দিলে হত্যার হুমকি। ঘটনাটি ঘটেছে চিরিরবন্দর উপজেলার নশরতপুর ইউনিয়নের ইছামতি ডিগ্রি কলেজ মোড়ে ।
জানা গেছে,পাশ্ববর্তী খানসামা উপজেলার ভাবকী ইউনিয়নের মারগাঁও  গ্রামের আব্দুল বাকীর পূত্র আরিফ হোসেন কৌশলে চিরিরবন্দরের নশরতপুর ইউনিয়নের মোসলেম উদ্দিনের পূত্র মো: আবু বক্কর সিদ্দিক (১৬) ও এছতিশ মাষ্টার পাড়ার কালিদাস এর পূত্র সোহাগের (১৬) সাথে বন্ধুত্ব গড়ে তোলে।  গত ১১ মার্চ আবু বক্কর সিদ্দিককে বিয়ে বাড়ি এবং সোহাগকে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে তাদেরকে মাইক্রোবাস করে ঢাকায় নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর সোহাগ ও সিদ্দিকের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় পরিবারের মধ্যে সন্দেহের সৃষ্টি হয়।
পরের দিন আরিফের মুঠোফোন থেকে (০১৭৯৩৫১৮৮৬০) সিদ্দিকের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা দাবি করে। দাবীকৃত টাকা না দিলে হত্যার হুমকি দেয় বলে সিদ্দিকের পরিবারকে। তারা সোমবার (১৩ মার্চ) সকালে আরিফ হোসেনের বাড়িতে গেলে আরিফকে পাওয়া যায়নি। পরে ওই এলাকাবাসী জানায় আরিফের বাবা-মা ঢাকায় গার্মেসের চাকুরী করার সুবাদে তারা কেউ এলাকায় থাকে না। অনেকে জানায় আরিফ দীর্ঘ দিন যাবত তার নানা বাড়ি চিরিরবন্দর রানীরবন্দরে বাসতলার পাড়ে থাকে। দুপুরে  আরিফের নানা মতিয়ারের বাড়িতে গেলে সেখানেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার নানী জানায় প্রায় ৫ বছর যাবৎ নানা বাড়িতে আসে না এবং সে বিভিন্ন অপকর্মের জন্য তার বাবা মায়ের কাছেও থাকতে পারে না।
এদিকে ছেলেদের খবর না পেয়ে সিদ্দিক ও সোহাগের দু-পরিবারের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। পরিবার জানায় সোহাগ লেখাপড়ার পাশাপাশি কলেজ মোড়ে মশিউর রহমানের ওয়ার্কসপে কাজ করার সুবাদে আরিফের সাথে বন্ধুতের সম্পর্ক তৈরী হয় ।
এ ব্যাপারে চিরিরবন্দর অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: হারিসুল ইসলাম জানায়, আমি অভিযোগ পেয়েছি। অপহৃতদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly