CC News

একরাম হত্যার বিচার ৬ মাসে শেষ করার নির্দেশ

 
 
ঢাকা : ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একরামুল হক হত্যা মামলাটির বিচার বিলম্ব ছাড়াই ৬ মাসের মধ্যে শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। একই সঙ্গে এই মামলায় বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ওরফে মিনার চৌধুরীকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বাতিল করা হয়েছে।
হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে আজ রবিবার এই আদেশ দেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন ৩ সদস্যের আপিল বিভাগ।
আদালতে মিনার চৌধুরীর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মুনসুরুল হক চৌধুরী। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী আবু হানিফ। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
পরে মুনসুরুল হক চৌধুরী বলেন, ৬ মাসের মধ্যে মামলার বিচার কাজ শেষ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ সময়ে বিচার শেষ না হলে মিনার চৌধুরী জামিন আবেদন করলে তা বিবেচনা করতে বলা হয়েছে।
এর আগে গত বছরের ৪ ডিসেম্বর মিনার চৌধুরীকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত  স্ট্যান্ডওভার (মুলতবি) রেখেছিলেন আপিল বিভাগ।
গত বছরের ২৮ নভেম্বর মিনার চৌধুরীর জামিন স্থগিত করে বিষয়টি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। একই বছরের ২৪ নভেম্বর বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ  মিনার চৌধুরীকে ৬ মাসের জামিন দেন। পরে এই জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষ। মিনার চৌধুরী বর্তমানে কারাগারে আছেন।
২০১৪ সালের ২০ মে ফেনীর একাডেমি এলাকার বিলাসী সিনেমা হলের সামনে প্রকাশ্যে ফুলগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি একরামুল হককে গুলি করে ও পুড়িয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তার সঙ্গে থাকা প্রক্তন উপজেলা চেয়ারম্যান, স্থানীয় পত্রিকার সম্পাদক ও গাড়িচালকও দগ্ধ হন।
ওই দিন রাত ১টার দিকে নিহত একরামুল হকের বড় ভাই তার নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন মিনারকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাতপরিচয় ৩৫ জনের বিরুদ্ধে ফেনী সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।
Print Friendly, PDF & Email