CC News

কক্সবাজারে আপন জুয়েলার্সের পক্ষে মোনাজাত!

 
 

সিসি ডেস্ক: কক্সবাজার বায়তুশ শরফ মসজিদে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণে অভিযুক্তদের মুক্তি ও আপন জুয়েলার্সকে রক্ষার জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়েছে। শুক্রবার জুমার নামাজের পর এই মোনাজাত করা হয়।

আবুল বাশার নামের এক মুসল্লি জানিয়েছেন, নামাজের সময় তিনি একেবারে সামনের সারিতেই ছিলেন। জুমার নামাজ শেষে মসজিদের ইমাম মৌলানা রিদুয়ানুল হক যখন মোনাজাত শুরু করবেন তখন বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের পরিচালক সিরাজুল ইসলাম কানে কানে ইমাম সাহেবকে কিছু একটা বলেন। এরপর মোনাজাত করে বনানীতে ২ ছাত্রী ধর্ষণে জড়িতদের মুক্তি ও আপন জুয়েলার্সকে বিপদ থেকে মুক্তির জন্য দোয়া করা হয়।

বায়তুশ শরফ মসজিদ কক্সবাজার শহরের সবচেয়ে বড় মসজিদ। এই মসজিদে কয়েক হাজার

মুসল্লী জুমার নামাজ আদায় করেন। মোনাজাত শেষ হওয়ার পর ৩ তলা এই মসজিদের কয়েক হাজার মুসল্লী চিৎকার শুরু করেন। মুসল্লীরা মসজিদের ইমাম ও কমিটির কাছে এই ধরনের ঘৃণিত কাজের জন্য মোনাজাত কেন করা হলো জানতে চায়।

মুসল্লীরা উত্তেজিত হয়ে পড়লে ইমাম ও পরিচালক দ্রুত পালিয়ে যায়।

কিন্তু এই ব্যাপারে পরিচালক সিরাজুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, বর্তমানে তিনি চট্টগ্রামে রয়েছেন। তবে ইমামের এ রকমের একটি দোয়া করার কথা তিনি শুনেছেন। একজন লোকের অনুরোধে এ রকম একটি মোনাজাত করার বিষয়টি ইমাম স্বীকার করেছেন। এটি দু:খজনক ঘটনা। এ ঘটনার জন্য শনিবার কমিটির জরুরি সভা আহবান ও ইমামকে শোকজ করার কথা জানান।

Print Friendly