CC News

চাঁদপুর জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরী সভা

 
 

শরীফুল ইসলাম, চাঁদপুর ॥ জেলা ত্রাণ ও পূনর্বাসন কর্মকর্তা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বেলা ১১ টায় জেলা প্রশাসেকর সম্মেলন কক্ষে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলা আগাম প্রস্তুতি সংক্রান্ত বিষয়ে বিভিন্ন সিন্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় বিভিন্ন সিদ্ধান্তের কার্যাবলি নিয়ে কার্যবিবরনি পাঠ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আয়শা আক্তার। সভায় উপস্থিত সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও সাংবাদিকসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সর্বসম্মত ভাবে সহযোগিতার আহ্বান জানান  ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালরেয়র যুগ্ম সচিব সত্যেন্দ্র কুমার সরকার। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুরে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলা আমাদের আগাম প্রস্তুতি রাখা দরকার। আমাদের চেষ্টা না থাকলে ক্ষতির মধ্যে পড়তে হবে। তিনি আরো বলেন, চাঁদপুরে যদি বন্যা হয়, আর এখানে কি লাগবে তা এখন থেকে আপনাদেরকেই কাজে লাগাতে হবে। আপনাদের যা যা দরকার তা প্রস্তুত করে রাখুন। এখানকার আশ্রয়ন প্রকল্পগুলোর উচু যায়গায় গবাদি পশু রাকতে হবে। তা না হলে পশুগুলো রোগাকক্রান্ত হয়ে মারা যাবে। এখন থেকেই আপনাদের প্রচারনা চারিয়ে যেতে হবে। অন্যদিকে ইউনিয়ন পরিষদ হচ্ছে মূল চালিকা শক্তি। তাদের মধ্য থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। বন্যা আসলে আমাদের কি করনিয় তা জানতে হবে। মানুষ সচেতন হলে ক্ষয় ক্ষতির পরিমান কম হবে। বন্যাতে শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি থাকে। কোন শিশু যাতে পানিতে ডুতে মারা না যায় তার প্রতি দৃষ্টি রাখতে হবে। বন্যার ক্ষেত্রে অবহেলা করার সযোগ নেই। সবার কাজ করতে হবে। আমাদের কন্টোল রুম রয়েছে আপনারা আমাদের কাছে সহযোগিতা চাইতে পারেন। আমরা সর্বদা সহযোগিতা করতে প্রস্তুত। জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সবুর মন্ডলের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা মুক্তিযুদ্ধ সংসদের কমান্ডার এমএ ওয়াদুদ, চাঁদপুর চেম্বার অব কর্মার্সের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, কোস্ট গার্ড কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ, জেলা স্কাউট কমিশনার অজয় ভৌমিক, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা, হাইমচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল হাসনাথ মো. মাঈনুদ্দিন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ড. মো. শহিদ হোসেন, হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান মজুমদার, মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারমিন আক্তার, সদর উপজেলা পরিবার-পরিকল্পনার কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম, খাদ্য কর্মকর্তা সুভাষ, ফায়াস সার্ভিস স্টেশন কর্মান্ডার আব্দুল বারেক।

Print Friendly, PDF & Email