CC News

ঠাকুরগাঁয়ে পানিবন্দি মানুষদের আশ্রয়কেন্দ্র নিতে স্প্রীড বোড

 
 

ঠাকুরগাঁও: টানা তিন দিনের ভারী বর্ষণে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলার বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়েছে জেলার কয়েক লক্ষ মানুষ।

রবিবার (১৩ আগষ্ট) ঠাকুরগাঁওয়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি দেখার পর টাঙ্গন নদীতে নামানো হয়েছে স্পীড বোট।

সারাদিন ইএসডিও’র রেসকিউ টীম স্পীড বোটের মাধ্যমে হঠাৎপাড়া, ডিসিবস্তি, বেলতলাসহ প্লাবিত বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল হতে প্রায় দুই শতাধিক মানুষকে পানিবন্দি অবস্থা হতে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে।

এ সময় ইকো-সোসাল ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ইএসডিও) নির্বাহী পরিচালক ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামানের নির্দেশে এই উদ্ধার অভিযানে অংশগ্রহন করেন সৈয়দ মাহবুবুল আলম মানিক, সুলতান আলী ও মো. সোহেল রানা। আরও অংশ নেয় ছুটিতে বেড়াতে আসা বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর সদস্য স্টিভ ববি মুন্সি।

তাৎক্ষণিক এই উদ্ধার অভিযানে ঠাকুরগাঁও শহরের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান শামীম অটোস এর স্বত্তাধীকারী মো. জীবন এই উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়ে পানিবন্দি মানুষদের আশ্রয়কেন্দ্র নিয়ে আসেন।

ঠাকুরগাঁওয়ের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ নিজ নিজ ফেসবুক ওয়ালে পানিবন্দি মানুষদের ছবি দিয়ে দোয়া চেয়েছেন।

শনিবার ঠাকুরগাঁও শহরের টাঙ্গন নদীর তীরের ডিসি বস্তি, হঠাৎ পাড়া, কলেজপাড়াসহ রোড খালপাড়া ও শান্তিনগর এলাকার বেশ কিছু ঘরবাড়ি তলিয়ে গেছে। বাড়িতে পানি উঠায় এসব এলাকার মানুষ ঠাকুরগাঁও শহরের রিভারভিউ উচ্চ বিদ্যালয়, জেলা শিল্পকলা একাডেমি রোড যুব সংসদে আশ্রয় নিয়েছে।

ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, বন্যা কবলিত মানুষকে উদ্ধার করতে রংপুর সেনাবাহিনীর সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email