CC News

নীলফামারী-৩ আসনে অধ্যক্ষ শহীদুল ইসলামের প্রার্থীতা ঘোষণা

 
 

নীলফামারী প্রতিনিধি: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী-০৩ (জলঢাকা-কিশোরগঞ্জ আংশিক) আসনে প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অধ্যক্ষ এ.কে.এম শহীদুল ইসলাম।
মঙ্গলবার বিকেলে নীলফামারীর মিডিয়া হাউজে এক সংবাদ সম্মেলণের মাধ্যমে তিনি প্রার্থীতা ঘোষণা করেন।
সংবাদ সম্মেলণে তিনি জানান, ছাত্রজীবনে তিনি জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে কলেজ জীবনেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন।
এরপর ১৯৬৬ সালে তৎকালীণ বৃহত্তর রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
কলেজ জীবন শেষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে ১৯৬৯ সালে শের-ই-বাংলা হলের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে ক্রীড়া সম্পাদক নির্বাচিত হন।
এছাড়াও ১১ দফা আন্দোলন, আইয়ুব বিরোধী আন্দোলন, ৬ দফাসহ বিভিন্ন আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখেন তিনি। এছাড়াও যুদ্ধকালীণ সময়ে প্রশিক্ষণ নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে রাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে অংশগ্রহন করলেও মুক্তিযুদ্ধে সনদ নেননি বলে দাবি করেন তিনি।
দলীয় মনোনয়ন পেলে নির্বাচনে জয়লাভ করবেন আশাবাদ ব্যাক্ত কওে তিনি বলেন, তিনি নির্বাচিত হলে ভিশন ২০২১ সাল ও রুপকল্প ২০৪১ সাল বাস্তবায়নে কাজ করবেন তিনি।
নির্বাচিত হলে সৎ ও নিষ্ঠার সাথে এলাকার সকল মানুষকে সাথে নিয়ে এলাকা ও দেশের উন্নয়নে কাজ করার অঙ্গিকার করেন তিনি।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ¯œাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন শেষে ১৯৭০ সালে লালমনিরহাট সরকারী কলেজে প্রভাষক হিসেবে যোগদান কওে বিভিন্ন কলেজে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন কওে ২০০৫ সালে লালমনিরহাট মজিদা খাতুন সরকারী কলেজ থেকে অধ্যক্ষের দায়িত্ব থেকে অবসর নেন।
১৯৪৭ সালে জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের বেড়ভেড়ি গ্রামে জন্মগ্রহন করেন তিনি।
এসময় সংবাদ সম্মেলণে পুটিমারী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান, ধর্মপাল ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সদস্য মোশারফ হোসেন, কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য আব্দুস সাত্তার ও ধর্মপাল ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সবদার আলী উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email