CC News

ইরানের তাড়া খেয়ে পালালো মার্কিন যুদ্ধজাহাজ!

 
 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ধাওয়া করে গালফ সাগরে একটি মার্কিন যুদ্ধজাহাজকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি করেছে ইরান। ইরানের বার্তা সংস্থা তাসনিম রোববার এ খবর দিয়েছে।এতে বলা হয়েছে, গালফ সাগরে রকেট বহনকারী ইরানি মিলিটারি জাহাজের ধাওয়ার মুখে মার্কিন যুদ্ধজাহাজটি তার গতিপথ বদলাতে বাধ্য হয়।

বারবার সতর্ক করারও পরও মার্কিন যুদ্ধজাহাজটি অবস্থান করে ইরানের বেশ কয়েকটি মাছ ধরা নৌকার ক্ষতিসাধন করে। পরে ইরান তাদের ধাওয়া করতে বাধ্য হয়।তবে মার্কিন কর্তৃপক্ষ ইরানের এই দাবি নাকচ করে দিয়েছে।বার্তা সংস্থা তাসনিম ঠিক কোথায় এ ঘটনা ঘটেছে, তা স্পষ্ট করেনি। তবে হরমুজ প্রণালীর কৌশলগত অঞ্চলের কাছাকাছি বলে জানিয়েছে।

পরে এক বিবৃতিতে মার্কিন নৌবাহিনী জানিয়েছে, ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ওমানের গালফে উপকূলীয় মহড়া দিচ্ছে যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস টেমপেস্ট। জাহাজটি ৭৫ নটিক্যাল মাইল দূর থেকে একটি অজ্ঞাত নৌকার কল পায়।প্রায় একই সময়ে মোটর ভেসেল নরডিক ইয়োগার ওই নৌকাটির খুব কাছ দিয়ে যাচ্ছিল। এ সময়েই জাহাজটি থেকে নৌকাকে সাহায্যের আহ্বান জানানো হয়। আর টেমপেস্ট নরডিক ইয়োগারকে সহায়তা করতে চেয়েছিল। তবে তারা তা প্রত্যাখ্যান করে।

পরে খুবই কম দূরত্বে রেডিও ট্যাফিকের মাধ্যমে মার্কিন যুদ্ধজাহাজটি জানতে পারে, নরডিক ইয়োগারকে সহায়তা করছে ইরানি নৌবাহিনীর একটি জাহাজ। পরে ইরান সেটিকে নিরাপদ করে নিয়ে যায়।মার্কিন নৌবাহিনীর মুখপাত্র কোলে মরগান বলেন, ‘এই সময়ের মধ্যে সমুদ্রসীমায় মার্কিন যুদ্ধজাহাজের সঙ্গে ইরানি বাহিনীর সরাসরি কোনো সাক্ষাৎ হয়নি।’

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে গালফ সাগরে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ ও ইরানি বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত আগস্টে একটি অজ্ঞাত ইরানি ড্রোন মার্কিন নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজের মাত্র ৩১ মিটারের মধ্যে টহল দেয়।এর আগে জুলাইয়ে মার্কিন নৌজাহাজ থেকে ইরানি জাহাজকে সতর্ক করে ফায়ার করা হয়। সে সময়ে ইরানি জাহাজটি মার্কিন জাহাজের ১৩৭ মিটারের মধ্যে ছিল।

গত জানুয়ারিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন। এরপর ইরানের ওপর নতুন করে অবরোধ আরোপ করে। আর তা নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই সাগরে এসব ঘটনা ঘটে।

Print Friendly, PDF & Email