CC News

রোহিঙ্গাদের ত্রাণ লুট করছে ক্ষমতাসীন নেতারা: রিজভী

 
 

ঢাকা: মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জন্য বিদেশ থেকে যেসব ত্রাণসামগ্রী আসছে সরকারদলীয় নেতাকর্মীরা তা লুট করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। এছাড়া মিয়ানমার থেকে আনা শরণার্থীদের সীমিত সম্পদ আওয়ামী লীগ নেতারা কেড়ে নিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার, ষড়যন্ত্র ও বর্তমান পেক্ষাপট’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এসব অভিযোগ করেন রিজভী। জাতীয় নাগরিক সংসদ এই সভার আয়োজন করে।

গত ২৪ আগস্ট মিয়ানমারের কয়েকটি পুলিশ ও সেনা ক্যাম্পে হামলার ঘটনার পর থেকে রাখাইন রাজ্যে অভিযান চালাচ্ছে দেশটির সেনাবাহিনী। অভিযানের মুখে প্রাণে বাঁচতে দলে দলে বাংলাদেশে আসছেন রোহিঙ্গারা। ইতোমধ্যে চার লাখের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে। রাখাইনে পরিস্থিতির উন্নতি না হলে কয়েক মাসের মধ্যে বাংলাদেশে শরণার্থীর সংখ্যা এক মিলিয়ন বা ১০ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। বাংলাদেশে আসার সময় অনেক রোহিঙ্গা গরুসহ কিছু মালামাল নিয়ে আসছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখা যায়।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, দমন-পীড়নের মধ্যে অনেক রোহিঙ্গা কেউ হয়তো সীমিত সম্পদ নিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। তাদের সেই সম্পদও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা লুট করছে বলে আমরা খবর পেয়েছি।

রিজভী অভিযোগ করেন, সরকারদলীয় নেতা-কর্মীরা বিদেশ থেকে আসা ত্রাণসামগ্রী লুট করছে। তাই কি পরিমাণ ত্রাণ আসছে এবং তা কিভাবে বন্টন হবে তা মিডিয়ায় প্রকাশের আহ্বান জানান তিনি।

বাংলাদেশে এসে রোহিঙ্গারা আরও বেশি সমস্যায় পড়ছে এমনটা দাবি করে রিজভী বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা নিরসনে সরকারের ‘ভুল নীতির’ কারণে প্রতিদিন ১০-১২ জন রোহিঙ্গা বৃদ্ধ ও শিশু মারা যাচ্ছে। অথচ এ সংকট মোকাবেলায় সরকার কার্যত কোনো ভূমিকা রাখছে না।

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের রহমতুল্লাহ, নিপুন রায় চৌধুরী, খালেদা ইয়াসমিন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email