CC News

নীলফামারীতে সরকারী রাস্তার গাছ কাটছে প্রভাবশালী

 
 

নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীতে সরকারী রাস্তার গাছ অবৈধ ও জবরদখলভাবে কাটছে এক প্রভাবশালী। নীলফামারী জেলা পরিষদের তত্তাবধানে জেলার চিলাহাটি-ভাউলাগঞ্জ সড়কের কাঠালতুলী নামক স্থানে অর্ধ লক্ষ টাকা মুল্যের চারটি সীসা গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। দুটি গাছ কাটার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শেষ করা হয়েছে। বিষয়টি যেন দেখার কেউ নেই।
জানা যায়, জেলার চিলাহাটি-ভাউলাগঞ্জ সড়কের তিন কিলোমিটার সড়কের দু-ধারে বেসরকারী সংস্থা আরডিআরএস এর ফেডারেশনের মাধ্যেমে সমিতি গঠন করে স্বল্প মেয়াদী, মধ্যে মেয়াদী ও দীর্ঘ মেয়াদী গাছ রোপন করা হয়। এ রোপিত গাছের ৬০ শতাংশ অংশ সমিতির ও অবশিষ্ট ৪০ শতাংশ জেলা পরিষদের অংশ রয়েছে। ইতিমধ্যে সমিতি স্বল্প মেয়াদী ও মধ্যে মেয়াদী গাছগুলি কেটে বিক্রি করে দিয়েছে। সড়কে এখন রয়েছে শুধুমাত্র দীর্ঘ মেয়াদী গাছ। অপরদিকে ওই সড়কের কাঠালতুলি নামক স্থানে এসএম আব্দুল্লাহ নামের এক ব্যাক্তি একটি মিশ্র ফলের বাগান তৈরী করেন। বাগান তৈরী করতে তিনি সড়কের সরকারীভাবে লাগানো গাছ সহ সড়কের সরকারী অংশের জমি বেড়া দিয়ে অবৈধভাবে দখল করে নেন। দীর্ঘদিন ধরে গাছ ও সড়কের জমি তিনি ভোগ দখল করে আসছেন। গতকাল শুক্রবার হতে তিনি তার দখলে নেয়া সড়কের সরকারী জমির চারটি সীসা গাছ কাটার প্রক্রিয়া শুরু করেন ও ইতিমধ্যে দুটি গাছ সম্পুর্নরুপে কেটে নেন ও দুটি গাছ কাটার সকল প্রক্রিয়া শেষ করেছেন।
এ ব্যাপারে এসএম আব্দুল্লাহ জানান, তিনি সড়কের জমি দখল করেননি বরং তার জমিতে লাগানো গাছ তিনি কেটেছেন। একটি মহল তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন বলে তিনি দাবী করেন। এ ব্যাপারে ফেডারেশনের সভাপতি হামিদুল ইসলাম সরকারী সড়কে তাদের সমিতির লাগানো গাছ কাটা হয়েছে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি দাবী করেন, এ ব্যাপারে চিলাহাটি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ দায়ের করতে গেলে পুলিশ কোন অভিযোগ নেয়নি।

Print Friendly, PDF & Email