CC News

ডিমলায় মসজিদে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় আটক-৬

 
 

সিসি নিউজ: জমি দিয়ে বিরোধের জের ধরে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের শোভানগঞ্জ বালাপাড়া গ্রামের একটি ওয়াক্তিয়া মসজিদে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরের এই ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৬ ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করে।
এলাকাবাসী জানায়, শোভানগঞ্জ বালাপাড়া গ্রামের আফছার আলীর ছেলে জোবাইদুল ইসলামে সঙ্গে শোভানগঞ্জ পশ্চিমপাড়া ওয়াক্তিয়া মসজিদ কমিটির জমি নিয়ে দীঘদিন দ্বন্দ চলে আসছিল। আজ মঙ্গলবার জোহরের নামাজের পর জোবায়দুল ইসলাম ও তার পক্ষের  লোকজন ওয়াক্তিয়া মসজিদটিতে আগুন দিয়ে পুড়ে দেয়। এ সময় এলাকাবাসী খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের দোহলপাড়া গ্রামের মৃত. আজাহার উদ্দিনের ছেলে মোবারক হোসেন (৪৫), একই গ্রামের মৃত. দবির উদ্দিনের দুই ছেলে বেলাল উদ্দিন (২৫) ও আল আমিন (২২), আব্দুল মোতালেবের ছেলে মোখলেছার রহমান (৪০), আব্দুল সাত্তারের ছেলে রাব্বানী (২২) ও একই ইউনয়নের বন্দর খড়িবাড়ী গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে এরশাদ হোসেন (২২)। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
বালাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জের ওয়াক্তিয়া মসজিদে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় প্রতিপক্ষ।
শোভানগঞ্জ পশ্চিমপাড়া ওয়াক্তিয়া মসজিদ কমিটির সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন, স্থানীয়দের উদ্দ্যেগে ওয়াক্তিয়া মসজিদ ঘরটি নির্মান করা হলেও জোবায়দুল ইসলাম মসজিদে তার দুই হাত জায়গা  ঢকেছে মর্মে দাবি করে আসছিল। পরবর্তীতে ডিমলা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তবিবুল ইসলাম পাশ্ববর্তীস্থানে বদল জমিতে ১ শতাংশ জমি দেয় জোবায়দুল ইসলামকে। এরপরেও সে মসজিদের দুই হাত জায়গা দখলে তার জমিটি দখল তার পরিবার ও বহিরাগত লোকজন সহ মসজিদ ঘরটিতে আগুন দিয়ে পুড়ে দেয়।
ডিমলা থানার ওসি (তদন্ত) মফিজ উদ্দিন শেখ বলেন, এ ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email