CC News

কিশোরগঞ্জে সীমানা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৫

 
 

বিশেষ প্রতিনিধি: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে জমির সীমানা নির্ধারণকে কেন্দ্র করে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে স্কুল শিক্ষক ও ইউপি সদস্যসহ ১৫ আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) সকালে উপজেলার রণচন্ডি ইউনিয়নের উত্তর কুটিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, জমির সীমানাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার রণচন্ডি ইউনিয়নের উত্তর কুটিপাড়ার সুনিল চন্দ্র গং ও কুটিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ভুপেন চন্দ্র (৫০) গংয়ের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১৫জন আহত হয়। আহতরা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, কুটিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ভূূপেন চন্দ্র স্কুলের স্লীপের টাকা উত্তোলন করে স্লীপের মালামাল ক্রয় শুরু করেন। কিন্তু টাকা উত্তোলনের পর ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক স্লীপের টাকার ভাগ চায়। প্রধান শিক্ষক সেই টাকার ভাগ দিতে রাজী না হওয়ায় সুনিল চন্দ্র গংয়ের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। সেই পূূর্ব শত্রুতাকে কাজে লাগিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বাড়ীর পার্শবতী জমির সীমানা নির্ধারণ করতে গিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বাক-বিতন্ডার সৃষ্টির এক পর্যায়ে উত্তর কুটিপাড়ার গজেন্দ্র রায়ের ছেলে সুনিল চন্দ্র তার পরিবারের লোকজনকে লাঠি নিয়ে আসতে বলে। মুুহুর্তের মধ্যে দুু’পক্ষের লোকজন লাঠি-সোটা নিয়ে মারামারিতে উভয় পক্ষের মধ্যে ১৫জন আহত হয়। আহতরা হলেন- কুটিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ভুপেন চন্দ্র (৫০), সহকারী শিক্ষক জোগেশ চন্দ্র্র (৪২), ইউপি সদস্য খগেন চন্দ্র (৪৫), জুয়েল চন্দ্র্র (৩০), নিহার রঞ্জন রায় বিপ্লব (২৮), ভরত চন্দ্র রায় (৪০), গোপাল চন্দ্র রায় (২১), নমিতা রানী রায় (১৪), ক্ষিরোদ চন্দ্র রায় (৩৫), পলাশ চন্দ্র রায় (২৫), লাল্টু চন্দ্র রায় (২০), শুকেশ চন্দ্র রায় (২৮), বিনোদ চন্দ্র রায় (৪০), প্রকশ চন্দ্র রায় (২৫), বিউটি রানী (২৫) ও রঞ্জনা রানী (২৬) প্রমুখ।
এ ব্যাপারে রনচন্ডী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোকলেছুর রহমান বিমানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, এটি তাদের দীর্ঘদিনের পারিবারিক দ্বন্দ্ব। বিষয়টি মিমাংসা করা হবে।
কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বজলুর রশিদ বলেন, ঘটনার বিষয় জানার পর পরেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email