CC News

ভারতে ২ হাজার মুসলিম তরুণীর বিয়ে হিন্দুদের সাথে!

 
 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: হিন্দু যুবতীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলছেন মুসলিম যুবকরা। বিয়ের পর তাদেরকে ধর্মান্তকরণে চাপ দেয়া হচ্ছে। এমনই অভিযোগ ঘিরে রীতিমতো আতঙ্ক ছড়ানো হয়েছে ভারতীয় কেরলে। ‘লাভ জিহাদ’ –এর বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলাও চলছে। আর এবার আসরে নামল উগ্র হিন্দুবাদী গ্রুপ আরএসএস। আরএসএসের শাখা সংগঠন হিন্দু জাগরণ মঞ্চের ঘোষণা, আগামী সপ্তাহ থেকে ২ হাজার মুসলিম যুবতীর সঙ্গে হিন্দু যুবকদের বিয়ে দেবে তারা।

মোদি সরকার যেমন ‘বেটিও পড়াও, বেটি বাঁচাও’ প্রকল্প চালু করেছে, তেমনি ‘বেটি বাঁচাও, বহু লাও’ নামে একটি নয়া কর্মসূচি নিয়েছে আরএসএসের শাখা সংগঠন হিন্দু জাগরণ মঞ্চ। এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য কী? সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, হিন্দু যুবকদের সঙ্গে মুসলিম যুবতীদের বিয়ে দেয়া হবে। আগামী সপ্তাহ থেকে দু’হাজার মুসলিম যুবতীদের সঙ্গে হিন্দু যুবকদের বিয়ের আয়োজন করবে হিন্দু জাগরণ মঞ্চ। বিয়ের পর নবদম্পতিদের আর্থিক ও সামাজিক নিরাপত্তার দায়িত্বও নেবে সংগঠনের সদস্যরা। শুধু তাই নয়, হিন্দু মতে বিয়ে হবে ঠিকই। তবে বিয়ের পর মুসলিম যুবতীদের হিন্দু ধর্মগ্রহণ করতে হবে না।

কিন্তু, একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন হঠাৎ করে হিন্দুদের সঙ্গে মুসলিমদের বিয়ে দিতে চাইছে কেন? হিন্দু জাগরণ মঞ্চের উত্তরপ্রদেশ শাখার প্রধান অজ্জু চৌহান জানিয়েছেন, তাদের এই নয়া কর্মসূচিও একধরণের লাভ জিহাদ। তবে এক্ষেত্রে হিন্দু মহিলারা নন, বরং মুসলিম মহিলারাই হিন্দু যুবকদের বিয়ে করবেন। তার সাফ কথা, ‘লাভ জিহাদে শুধুমাত্র হিন্দু মহিলাদেরই নিশানা করা হচ্ছে। মুসলিম যুবকরা নিজেদের পরিচয় গোপন রেখে গলায় পৈতে পরছেন, মাথায় তিলক কাটছেন। এমনকী, হিন্দু মহিলাদের ফাঁদে ফেলার জন্য হনুমান চালিশাও পাঠ করছেন। তাই আমরাও ওদের ভাষাতেই ওদের শিক্ষা দেব।’

হিন্দু জাগরণ মঞ্চের এই নেতার সংযোজন, কোনো মুসলিম মহিলার যদি মুসলিম পরিবারেই বিয়ে হয়, তাহলে ওই মহিলার দশ জন সন্তান হবে। তারা বড় হয়ে আবার হিন্দুদের বিরুদ্ধেই কথা বলবে। কিন্তু, কোনো মুসলিম মহিলার যদি হিন্দু পরিবারে বিয়ে হয়, তাহলে তাকে বেশি সন্তান প্রসব করতে হবে না এবং ওই মহিলাও হিন্দু সমাজেরই অংশ হয়ে যাবেন। বস্তুত, গত বছর থেকে উত্তর প্রদেশের ‘সেভ হিন্দু গার্ল’ নামে প্রচারাভিযানও শুরু করেছে হিন্দু জাগরণ মঞ্চ। স্কুলে স্কুলে গিয়ে ছাত্রীদের মুসলিম যুবকদের বিয়ের করার কুফল বোঝানো হচ্ছে।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

Print Friendly, PDF & Email