CC News

‘এরশাদও এতো খারাপ ছিলেন না’

 
 

সিসি ডেস্ক: সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদের শাসনামলের সঙ্গে বর্তমান সরকারের শাসনামলকে তুলনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘এরশাদও এতো খারাপ ছিলেন না।’বুধবার (৬ ডিসেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ‘গণতন্ত্র দিবস’ উপলক্ষে ৯০এর ডাকসু সর্বদলীয় ছাত্র-ঐক্য এর আয়োজন করে।ফখরুল বলেন, ‘নিরপেক্ষ সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনে সরকারকে বাধ্য করতে হবে। কোনও হাংকিবাংকি করে লাভ হবে না।’

তিনি বলেন, ‘এরশাদ সমাবেশে গুলি চালায়নি, এতো মানুষ হত্যা করেনি। যতো মানুষ এই সরকার হত্যা ও গুম করেছে। এরশাদ মামলা দিয়ে এতো হয়রানি করেনি যতোটা না এ সরকার করছে। তবে এরশাদের পতন হয়নি। তিনি এখনও টিকে আছেন। এবং এখন তার দোসরদের টিকিয়ে রাখতে চেষ্টা করছেন।’

সরকারের উদ্দেশ্যে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা জেনে গেছেন, আপনাদের পায়ের নিচে মাটি নেই। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আপনাদের অস্তিত্ব থাকবে না। তাই সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে এতো ভয় পাচ্ছেন।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশের সামনে বিরাট সংকট রয়েছে। আমার যেটা মনে হচ্ছে এমন সংকট আর কখনও আসেনি।’বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যন শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে সরকার দুর্নীতিবাজ প্রমাণ করতে চাচ্ছে। আমি শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করবো আরেকটু ভাবুন। এতো অহংকার ভালো না।’ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন আপনি দেবেন কেন? আমরাই নির্বাচন আদায় করে নেবো।’

ওবায়দুল কাদেরকে লক্ষ্য করে দুদু বলেন, ‘বিএনপি মুসলিম লীগ হবে নাকি অন্য কিছু হবে এটি নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে না। আপনি বরং আপনার নেত্রী শেখ হাসিনাকে পাহারা দিয়ে রাখেন। মনে রাখবেন শেখ হাসিনা শেখ মুজিবের কন্যা।’ডাকসুর সাবেক ভিপি আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপি নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব, খায়রুল কবির খোকন, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, ডেমোক্রেটিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, জাগপার সাধারণ সম্পাদক খোন্দকার লুৎফর রহমান প্রমুখ।

ব্রেকিংনিউজ

Print Friendly, PDF & Email