CC News

রংপুরে হারের কারণ খুঁজতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

 
 

ঢাকা, ২৪ ডিসেম্বর: সদ্য সমাপ্ত রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর বিশাল ভোটের ব্যবধানে হেরে যাওয়ার কারণ অনুসন্ধান করে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সভায় এ নির্দেশ দেন তিনি। সভা শেষে দলের সভাপতিমণ্ডলীর কয়েক জন সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা যায়।

সভায় আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সারা দেশে রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক তৎপরতা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন শেখ হাসিনা।

সূত্র জানায়, সভায় রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয়। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর পরাজয়ের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের প্রার্থীর অবস্থা ভালো ছিলো না। বিজয়ী হতে পারবে না সেটা বোঝা যাচ্ছিলো। সেখানে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়েছে। কিন্তু এতো ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হওয়ার কারণ কি? কোথায় কি সমস্যা ছিলো এটা খতিয়ে দেখতে হবে।

সভায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আসন্ন নির্বাচন নিয়েও আলোচনা হয়। এ সময় এই নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম আলোচিত হচ্ছে তাদের প্রসঙ্গ উঠে আসে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যাদের নাম আলোচনায় আছে তাদের ব্যাপারে আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। জরিপ করা হচ্ছে। ইতিবাচক-নেতিবাচক দিক বিবেচনা করে গ্রহণযোগ্য প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হবে। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী তফশিল দেয়ার পর আমরা প্রার্থী চূড়ান্ত করবো।

এছাড়া খুলনা, রাজশাহীসহ অন্য যে সিটিগুলোতে আগামী বছর নির্বাচন হবে, এ সব জায়গায় যারা প্রার্থী হওয়ার জন্য কাজ করছেন তাদের ব্যাপারেও খোঁজ-খবর নেয়া হচ্ছে এবং জরিপ করা হচ্ছে। এর উপর ভিত্তি করে মনোয়নয়ন দেয়া হবে বলেও তিনি সভায় জানিয়েছেন।ওই সব সিটি করপোরেশনে যাদের নাম আসছে তাদের ব্যাপারে খোঁজ-খবর নিতেও নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

সূত্র জানায়, সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্যদের নেতৃত্বে বিভাগ ভাগ করে সফর করার নির্দেশ দিয়েছেন।

সভায় সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যদের মধ্যে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, গণপূর্তমন্ত্রী মোশাররফ হোসেন, আবদুর রাজ্জাক, আবদুল মতিন চৌধুরী, সাহারা খাতুন, কাজী জাফর উল্যাহ, ফারুক খান, আবদুল মান্নান খান এবং দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email