CC News

শিল্পী নাহিদ হত্যাকারীরা এখনো ধরা-ছোয়াঁর বাইরে !

 
 

দিনাজপুর, ৫ মার্চ: দিনাজপুরের তরুন শিল্পী ও সাংস্কৃতিক কর্মী নাহিদুর রহমান নাহিদ হত্যার বিচারের দাবীতে সাহিত্য-সাংস্কৃতিক ও সামাজিক কর্মীরা মানব বন্ধন এবং সাংবাদিক সম্মেলন করেছে।
দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে আজ রোববার দুপুরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী মানব বন্ধন চলাকালে বক্তারা অবিলম্বে হত্যাকারীদের খুজে বের করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানায়। বক্তারা বলেন এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। পুলিশ তৎপর হলেই হত্যাকারীদের খুজে বের করা সম্ভব।
এসময় বক্তব্য রাখেন সাংস্কৃতিক জোটের সাধারন সম্পাদক সুলতান কামালউদ্দীন বাচ্চু, উদীচীর সভাপতি রেজাউর রহমান রেজু , মহিলা পরিষদের সভানেত্রী কানিজ রহমান প্রমুখ।
তরুন শিল্পী ও সাংস্কৃতিক কর্মী নাহিদুর রহমান নাহিদ হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন শেষে দিনাজপুর প্রেস ক্লাবে একটি সাংবাদিক সম্মেলন করে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।
উল্লেখ্য, গত ২৬ ফেব্রুয়ারী রাতে দিনাজপুর ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গণে ইয়াম্মী চাইনিজ রেস্তোঁরায় একটি পার্টি’তে অংশ নিতে এসে দুর্বৃত্তদের টার্গেট হয় তরুন শিল্পী ও সাংস্কৃতিক কর্মী নাহিদুর রহমান নাহিদ। তাকে অসচেতন অবস্থায় দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডেকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
অত্যন্ত ন¤্র-ভদ্র,শান্ত-শিষ্ট,মিষ্টি ভাষী তরুন শিল্পী ও সাংস্কৃতিক কর্মী নাহিদুর রহমান নাহিদের কোন শক্র থাকতে পারে এটা কেউ বিশ^াস করছেন। তাকে হত্যা করতে পারে এটাও অনেকের কাছে অবিশ^াস্য। তার পরেও তাকে হত্যা করা হয়েছে,এটা নিশ্চিত। তার ময়না তদন্তের রিপোর্টে বুকে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে চিকিৎসকরা।
গোয়েন্দা বিশেষজ্ঞদের ধারনা,কোন কু-কর্ম অথবা আর্থিক লেন-দেনের স্বাক্ষী নাহিদকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিয়েছে তার ঘনিষ্টজনের কেউ। অথবা কোন নারী ঘটিত ঘটনায় ভুল বোঝা-বুঝি’র বলির পাঠা হয়েছে নাহিদ। নাহিদ দিনাজপুর ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গণে ইয়াম্মী চাইনিজ রেস্তোঁরায় পার্টি’তে অংশ নিতে এসেছে, এটা ওই পার্টি’তে অংশ নেয়া কেউ দূর্বৃত্তদের জানিয়েছে। তা হলে নাহিদ সেখানে অবস্থান করছে,এটা জানলো কিভাবে দুর্বৃত্তরা ? এমনি প্রশ্ন ঘুর পাক খাচ্ছে,অনেকের কাছে। চাইনিজ রেস্তোঁরায় পার্টি’তে অংশ নেয়া সন্দেহভাজনদের জিজ্ঞাসা করলে হয়তো এই হত্যার অনেক জোট খুলতে পারে বলে ধারণা করছে কেউ কেউ।

Print Friendly, PDF & Email