CC News

নীলফামারীতে শেষ হলো তৃণমূলের তীরন্দাজ খোঁজার পর্ব

 
 

সিসি নিউজ, ০৮ মে: নীলফামারীতে শূরু হওয়া তীরন্দাজ খোঁজের ১০ দিন ব্যাপী তীরন্দাজ বাছাই ও প্রাথমিক প্রশিক্ষনের শেষ দিন ছিল সোমবার। তীর গো ফর গোল্ড প্রজেক্টের অংশ হিসাবে ২০২০ অলিম্পিকে আরচ্যারীতে সোনা পাওয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আরচ্যারী ফেডারেশন সিটি গ্রুপের সহায়তায় একেবারে তৃণমূল পর্যায় থেকে তীরন্দাজ খোঁজা শুরু করে।
গত ২৮ এপ্রিল থেকে নীলফামারীতে শূরু হয়েছে তীরন্দাজ খোঁজের বাছাই ও প্রাথমিক প্রশিক্ষনের। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান এই প্রশিক্ষন ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আরচ্যারী ফেডারেশনের সাধারন সম্পাদক কাজী রাজিব উদ্দিন আহমেদ (চপল), সহ-সভাপতি আনিসুর রহমান দিপু ও নীলফামারী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি শাহীনুর আলম সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ।
আরচ্যারী ফেডারেশনের কোচ আবু সাঈদ ভুঁইয়া বলেন, প্রাথমিক পর্যায় প্রায় ৬০০ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে থেকে ২৫ জন ছেলে ও ২৫ জন মেয়েকে বাছাই করে নেওয়া হয়। এদের মধ্যে থেকে ২দিনের ট্রেনিং দিয়ে ১০ জন মেয়ে ও ১০ জন ছেলেকে রেখে ৮ দিনের পুরোপুরি প্রশিক্ষন শেষ হয়। প্রশিক্ষণ নেয়া ২০ জন ছেলে-মেয়ের মধ্যে থেকে ২ জনকে উচ্চতর প্রশিক্ষনের জন্য জেলা ক্রীড়া সংস্থাকে চিঠির মারফত জানিয়ে ডেকে নেওয়া হবে ৬০ দিনের প্রশিক্ষনের জন্য। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নীলফামারীর এই ক্যাম্প অবশ্যই ফলপ্রসু হয়েছে।
অংশ গ্রহনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে সানজিদা আকতার সুরমা, পূর্নিমা রায় ও কাজল রায় এই প্রশিক্ষনে অংশ গ্রহন করতে পেয়ে খুব খুশি, তারা প্রশিক্ষন নিয়ে বড় মাপের তীরন্দাজ হতে চায়।
সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর বলেন, নীলফামারীর মেয়ে বিউটি ইতোমধ্যেই আরচ্যারীতে আন্তর্জাতিক পর্যায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে দেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে। স্থানীয় সহযোগিতা পেলে এখানে আন্তর্জাতিক আরচ্যারী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র খোলা সম্ভব।

Print Friendly, PDF & Email