CC News

“ভাইসব, সেহরি খাবার সময় হয়েছে”

 
 
।। খুরশিদ জামান কাকন ।।
গভীর রাত। চোখে ঘুম নেই। বিছানার এপাশ ওপাশ করছি। কিছুতেই কাঙ্ক্ষিত ঘুমের নাগাল নেই। কি করবো না করবো ভেবে বেলকনিতে গিয়ে দাঁড়ালাম।
অনেকদিন পর রাতের ঢাকা দেখতে লাগলাম। কেমন জানি অন্যরকম অন্যরকম লাগছিলো। পাশেই একটা বস্তি। সবসময় কিচিরমিচির লেগেই থাকে। বিল্ডিং থেকে প্রায় দেখি বস্তিবাসীর ঝগড়াবিবাদ। সাথে তাদের ব্যস্ততা। কিন্তু এখন আর সেসব নেই, নেই তাদের কর্মচঞ্চলতাও। চারদিকেই এখন শুধু নিস্তব্ধতা।
কর্মব্যস্ত এই শহরের মানুষগুলো সর্বদায় জীবন ও জীবিকার তাগিদে ছুটে চলছে। নিজের ভাগ্য পরিবর্তনের প্রচেষ্টায় সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে। এর ফলশ্রুতিতে একেকজন যেনো এক একটি যন্ত্রমানবে পরিণত হয়েছে। দিনশেষে মানবসন্তান হিসেবে এই একটু সময় জিরিয়ে নেওয়ার।
এসব ভাবতে ভাবতে ঘরিতে কখন যে রাত দুটো বেজে গেছে বুঝতেও পারিনি। একটু পরেই সেহরির সময়। সেহরী খেতে হবে। তাই নতুন করে ঘুমানোর কথা আর ভাবলাম না।
রাতের আকাশ দেখছি। আর ভাবছি ঐ আকাশের বিশালতার কথা। আমরা মানুষেরা পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ প্রাণী। আমাদের কর্মকান্ড নিশ্চয় সবার সেরা হওয়া উচিত। কিন্তু আমরা মানবজাতি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নিকৃষ্টতার পরিচয় দিয়ে আসছি। আচ্ছা আমরা কি ঐ আকাশ থেকে উদারতার শিক্ষা নিতে পারিনা? নিজেকে কি একজন আদর্শবান মানুষ গড়ে তুলতে পারিনা? এমনি সব অদ্ভুত প্রশ্ন মনের মধ্যে জাগছে।
একটু পরেই সেহরির সময় হয়ে গেলো। সেহরি খাওয়ার প্রস্তুতি নিতে লাগলাম। ক্ষনিকেই শিশু কিশোরের কয়েকটি দল দেখতে পেলাম। এক একটি দলে ১০/১২ জন করে।
“ভাইসব,,, ভাইসব,, সেহরি খাবার সময় হয়েছে। আপনারা সবাই উঠুন”। এলাকাবাসীকে জাগাতে তারা এভাবে অনবরত ডেকে চলছে। আর একটু পর পরই চারদিকে রাউন্ড দিচ্ছে।
তাদের সকলের বয়স ১৬ থেকে ১৯ এর মধ্যে। একটা শিশুকে দেখলাম ৯ কি ১০ বছর বয়সের। এরা প্রতিদিন এভাবে সেহরির সময় ঢাকার মীরপুরে এলাকাবাসীকে জাগাতে সহযোগিতা করছে।
এমনটা আগেকার সময় খুব বেশি প্রচলিত ছিলো। এখন দেশের গুটি কয়েক গ্রামে হয়তো এমন দৃশ্য চোখে পড়বে। নিঃস্বন্দেহ এটি একটি ভালো কাজ। যা বেশ প্রশংসনীয়ও বটে।
যেখানে আমাদের যুবসমাজের মূল্যবোধ দিনকে দিন অবক্ষয়ের দিকে ধাবিত হচ্ছে। সেখানে মীরপুরের তরুণদের এই মহৎ উদ্দ্যোগ ঐ আকাশের মতো বিশালতার পরিচয় হয়তো দিবে না। কিন্তু তাদের এই তারুণ্য পরিচয় দিয়েছে ধার্মিকতার, সেই সাথে উদারতার।
Attachments area
Print Friendly, PDF & Email