CC News

৫ হাজার একর আয়তনের নতুন ভূখন্ড বঙ্গপোসাগরে

 
 

সিসি ডেস্ক, ২২ জুন: পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় গভীর সাগরে প্রায় পাঁচ হাজার একর আয়তন নিয়ে জেগে উঠেছে নতুন এক চর। বিজয়ের মাসে সন্ধান পাওয়ায় পর্যটনপ্রেমীরা এটির নাম দিয়েছেন চর বিজয়। অতিথি পাখি আর লাল কাঁকড়ার অবাধ বিচরণে এ চর আরো বেশি আয়তন নিয়ে পরিণত হচ্ছে স্থায়ী ভূখণ্ডে। পরিকল্পিত বনায়ন এবং জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের সমন্বিত কার্যক্রম নেওয়া হলে পর্যটনশিল্পে এই চর যোগ করতে পারে এক নতুন সম্ভাবনা।
অথৈ জলের মাঝে আকাশ আর মাটির মিতালী তৈরি করেছে জেগে ওঠা এক নতুন চর। জেলেদের কাছে এটি হাইরের চর নামে পরিচিত হলেও স্থানীয় পর্যটন ব্যবসায়ীরা এর নাম দিয়েছে চর বিজয়।
বর্ষা মৌসুমে পানিতে ডুবে থাকলেও শীত মৌসুমে পাঁচ হাজার একর আয়তন নিয়ে জেগে উঠে এ চর। ইলিশসহ সামুদ্রিক মাছের অভায়ারন্য হওয়ায় সারা বছর এর আশেপাশে থাকে জেলেদের উপস্থিতি। অস্থায়ী বাসস্থান তৈরি করে মাছ শিকার এবং শুটকি তৈরি করেন তারা। মানুষ কম থাকায় শীতে এখানে আসে ঝাঁক ঝাঁকে অতিথি পাখি। লাল কাঁকড়া আর অতিথি পাখির অবাধ বিচারণ এ চর ভ্রমণে নতুন মাত্রা যোগ করেছে।
এই চর ঘুরে এসে আনুষ্ঠানিক কোনো নাম না দিলেও দীর্ঘমেয়াদি অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং পর্যটনবান্ধব করার কথা বলেছেন পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মাছুমুর রহমান।
এদিকে চর বিজয়ে পশু-পাখির অভয়ারন্যসহ ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল করার পরিকল্পনা নিয়েছে বন বিভাগ।
পর্যটকদের নিরাপদ ভ্রমণে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে টুরিস্ট ও নৌ-পুলিশ। সাগরের বুক চিড়ে জেগে ওঠা দ্বীপগুলো রক্ষণাবেক্ষণ করলে দেশের পর্যটনশিল্পে ঘটবে বৈপ্লবিক পরিবর্তন।

উৎস: ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন

Print Friendly, PDF & Email