CC News

`ফুটওয়্যার’ দেশের রপ্তানি পণ্যের তালিকায় নতুন সংযোজন

 
 

সিসি নিউজ, ২৯ জুন: অর্থনৈতিক উন্নয়নের গতি বাড়াতে এবং ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য রপ্তানি পণ্যের বহুমুখীকরণের কোনো বিকল্প নেই। পণ্য রপ্তানির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে আমাদের  পোশাক শিল্প। পোশাকের গুনগত মান ও দক্ষ কর্মীর জন্য বিদেশের মাটিতে আমাদের দেশের পোশাক বেশ জনপ্রিয়। এই পোশাক রপ্তানীকরণের সাথে নতুন সংযোজিত পণ্যের নাম ফুটওয়্যার।

পোশাক শিল্পের পাশাপাশি  চামড়ার তৈরী পণ্যের চাহিদাও রয়েছে বহির্বিশ্বে। চামড়া বাংলাদেশের  একটি ঐতিহ্যবাহী রপ্তানি পণ্য।  বিপুল পরিমাণ চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য বিশ্বের অনেক উন্নত দেশে সুনামের সাথে রপ্তানি করে আসছে।  চামড়ার সহজলভ্যতা ও পণ্যের গুনগত  মানের জন্য দেশের তৈরী ফুটওয়্যার দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।  দেশের মানুষের চাহিদা পূরণ করে বিভিন্ন দেশে ফুটওয়্যার পণ্য রপ্তানিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

ফুটওয়্যারে ব্যবহৃত উন্নতমানের কাঁচামাল বাংলাদেশের নিজস্ব উৎপাদিত। দেশের তৈরি উন্নতমানের কাঁচামাল এবং দক্ষ জনশক্তির অপূর্ব এক মিশেলে তৈরি হচ্ছে বিশ্বমানের ফুটওয়্যার। বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের তৈরী ফুটওয়্যারের বিপুল চাহিদার প্রেক্ষিতে আধুনিক ও বিশ্বমানের ফুটওয়্যার কারখানা গড়ে উঠছে। আসছে বিদেশী বিনিয়োগও।

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থার (ওইসিডি) উদ্যোগে আয়োজিত বাংলাদেশের তৈরি পোশাক ও ফুটওয়্যারের ওপর একটি বিশেষ কর্মশালায় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন যে , বাংলাদেশ আজ দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশের মাটিতেও রপ্তানি করছে ফুটওয়্যার। বিশ্বমানের হওয়ায় রাতারাতি জয় করেছে বিশ্ব বাজার। বর্তমানে বাংলাদেশ এসব উৎপাদনশীল কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের জন্য  শ্রম আইন সংশোধন করে শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কারখানা গুলোতে  সংস্কার করা হয়েছে ফায়ার ও ইলেক্ট্রিকাল সেফটি ।  বাংলাদেশে একের পর গড়ে উঠছে  গ্রীণ ফ্যাক্টরি ।

দেশের শ্রমিকদের যদি কর্মক্ষত্রে নিরাপত্তা ও কাজের প্রতি উৎসাহ প্রদান করা হয় তাহলে তারা কাজের প্রতি আরও বেশি আগ্রহী হবে। তারা যদি কাজের প্রতি আগ্রহী হয় তাহলে পণ্যের গুণগত মান বৃদ্ধি পাবে। গুনগত মান বৃদ্ধির সাথে দেশের রপ্তানির চাকাও আরো গতিশীল হবে। বাংলাদেশ এক সময় আমদানিমুখী  একটি দেশ ছিল। ‘রূপকল্প-২১’ ও ‘রূপকল্প -৪১’ বাস্তবায়নের জন্য  ধীরে ধীরে রপ্তানিমুখী দেশের দিকে ধাবিত হচ্ছে দেশ। বিশ্বের অন্যতম পরাশক্তিতে রূপান্তরিত হবে বাংলাদেশ এবং সেই দিন আর বেশি দেরি নয়।

Print Friendly, PDF & Email