CC News

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে পূর্ণ সহযোগিতা দিবে চীন

 
 

ঢাকা, ২৯ জুন: বাংলাদেশের অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে চীন পূর্ণ সহযোগিতা করার নিশ্চয়তা দিয়েছে বলে জানালো পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আজ শুক্রবার বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই’র দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এই নিশ্চয়তা দেয়া হয়।

এসময় মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের দুর্দশার চিত্র পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা রাখাইনে তাদের অভিজ্ঞতার কারণে আতঙ্কে ভুগছে। তাই প্রত্যাবাসনের আগে তারা তাদের পূর্ণ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা চায়।তিনি বলেন, তারা কোনও ক্যাম্পে যেতে রাজি নয়, তারা নিজেদের গ্রামে ফিরে যেতে চায়। তারা যাতে সেখানে নিজেদের জীবিকার ব্যবস্থা নিজেরাই করতে পারে, তা অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে।জবাবে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেন, দ্রুত প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে চীন পূর্ণ সহযোগিতা দিয়ে যাবে। রাখাইনে তাদের পুনর্বাসনের জন্য গৃহ নির্মাণ ও জীবিকার সুযোগ তৈরির জন্যও কাজ করবে চীন।পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ২০১৬ সালে চীনা প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ সফরের সময় দুই দেশের যে যৌথ ঘোষণা এবং যে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের চুক্তি হয়, সেগুলো বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা হয় বৈঠকে দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে।বৈঠকে এর বাইরে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মত দ্বিপক্ষীয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। এই অঞ্চলের সামগ্রিক অগ্রগতির জন্য দুই দেশের উচ্চপর্যায়ে নিয়মিত আলোচনার পাশাপাশি জনগণের মধ্যে অব্যাহত যোগাযোগ প্রয়োজন বলেও একমত হয় উভয়পক্ষ।উল্লেখ্য, চীনের রাষ্ট্রীয় কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই’র আমন্ত্রণে তিন দিনের সফরে বৃহস্পতিবার বেইজিং যান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী।

Print Friendly, PDF & Email