CC News

চিলমারীতে বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ে জনজীবন বিপর্যস্ত

 
 

চিলমারী (কুড়িগ্রাম),  ১০ জুলাই: কুড়িগ্রামের চিলমারীতে গত কয়েক দিনের প্রচন্ড গরমে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন সাধারণ মানুষ। তীব্র তাপদাহে সাধারণ মানুষকে বাধ্য হয়েই ঘরবন্দি হয়ে থাকতে হচ্ছে। এতে করে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। এর পাশাপাশি বিদ্যুতের চরম ভেলকিবাজি আর লোডশেডিং তীব্র আকার ধারন করায় জনজীবনের চাকা যেন থেকে গেছে। সাথে সাথে অফিস, ব্যাংক বীমা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলোর কার্যক্রম থেমে যাওয়ায় উপক্রম হয়ে পড়েছে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সর্বোচ্চ ৩৪.০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ২৭.০৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ রকম তাপমাত্রা আরো কয়েকদিন থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আপাতত ঝড়ের সম্ভাবনা না থাকলেও তাপমাত্রা আরো বাড়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানা গেছে। এদিকে বিদ্যুতের লোডশেডিং দিন দিন বাড়ছে তো বাড়ছেই। বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে মানুষ হয়ে পড়েছে অসহায় থেকে গেছে বিদ্যুৎ নির্ভরশীল কার্যক্রম। বিদ্যুৎ নির্ভরশীল ব্যবসায়ীদের পড়েছে মাথায় হাত। সাথে সাথে প্রচন্ড ভ্যাপসা গরমে মানুষের জীবন ওষ্ঠাগত। বিশেষ করে শিশুদের জন্য মারাত্বক বিপদজনক। ভ্যাপসা গরমে নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। সর্দি জ্বর ব্যাপক হারে দেখা দিয়েছে। গরমে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষেরা। এছাড়া পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল গুলোতে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে দেখা যায়, প্রচন্ড গরমের কারণে বিভিন্ন হাট-বাজার, মোড়গুলোতে ভ্রাম্যমাণ ডাব ও আখের রসের দোকান বসেছে। এসব দোকানে ভিড়ও বেশ। এছাড়া গ্রামগুলোতে গরমে অতিষ্ঠ ছোট শিশুরা পুকুরে নেমে দীর্ঘক্ষন ধরে ডুব-সাঁতারসহ গোসল করছে। সচেতন মহল বলেন তীব্র গরম ও লোডশেডিং এর কারণে মানুষজনের জীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জানান, প্রচন্ড এই তাপদাহে বেশি বেশি করে পানি পান করতে হবে। রোদের মধ্যে বেশিক্ষণ চলাচল করা যাবে না। শিশুদের খুবই যতেœ রাখতে হবে যাতে গরমের ঘাম তাদের শরীরে বসে না যায়। এছাড়া শারীরিক অসুবিধা মনে হলেই দ্রুত হাসপাতালে এসে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। অপর দিকে চিলমারী বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা গেছে প্রয়োজনের তুলনায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কম তাই সমস্যা হচ্ছে। অতি শীঘ্রই সকল সমস্যা সমাধান করা হবে।

চিলমারীতে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে ক্যাম্পেইন
কুড়িগ্রামের চিলমারীতে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমবার দুপুরে উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরাম চিলমারীর আয়োজনে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ফোরামের সভাপতি ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মর্জিনা বেগম জেলির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মির্জা মুরাদ হাসান বেগ। বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ খালেদুর রহমান, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোছাঃ ছকিনা খাতুন, সমবায় অফিসার মাহবুব আহম্মেদ চৌধুরী, ফায়ার সার্বিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন ইনচার্জ চিলমারী গোলাম মোস্তাফা, আরডিআরএস এর বিল্ডিং বেটার ফিউচার ফর গালর্স উপজেলা কো-অডিনেটর ফারজানা ফৌজিয়া, মহিদেব যুবসমাজ উপজেলা কো-অডিনেটর শ্যামল চন্দ্র, সাংবাদিক হুমাউন কবির, নয়ারহাট ইউপি সচিব শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। এসময় নারী ফোরামের সদস্য, সাংবাদিক, এনজিও সদস্য, মহিলা সংরক্ষিত সদস্য, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন স্থরের জনসাধারন উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email