CC News

বিশ মিনিটের ফুটবল ম্যাচ!

 
 

সিসি নিউজ, ৫ সেপ্টেম্বর: গত মঙ্গলবার সৈয়দপুর ষ্টেডিয়ামে ৪৭তম গ্রীস্মকালীন খেলাধুলার উদ্বোধন করা হয়েছে। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমারের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোকছেদুল মোমিন এ খেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। নকআউট পদ্ধতি চার ইভেন্টের এ প্রতিযোগিতায় উপজেলার সকল মাধ্যমিকস্তরের প্রতিষ্ঠানগুলো অংশ গ্রহন করে। তবে ফুটবল ম্যাচের সময় স্বল্পতা নিয়ে এ জনপদের ফুটবলমোদীদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে মাত্র ৩ দিনের মধ্যে কাবাডি, হ্যান্ডবল ও ফুটবল প্রতিযোগিতা সমাপ্ত করতে হবে। এ লক্ষ্যে তড়িঘড়ি করে চলছে প্রতিযোগিতা। সাঁতার প্রতিযোগিতা ৫৩, কাবাডিতে ৮, হ্যান্ডবলে ১৬টি দল অংশ নেওয়ায় যথা সময়ে চ্যাম্পিয়ন পাওয়া গেলেও সংশয় তৈরী হয়েছে মানসম্মত ফুটবলার পাওয়া নিয়ে। কারণ এতে রয়েছে ২৮টি দল।

সৈয়দপুর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক শিক্ষক জানান, উপরের নির্দেশনায় প্রতি ফুটবল ম্যাচে সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে ২০ মিনিট। আর বিশ মিনিটের খেলায় মেধাবীদের পরখ করা সম্ভব নয়। এতে ইন্টারস্কুল ফুটবলে তৃনমূল পর্যায়ের মেধাবীরা বাদ পরে যাবে এটি জানলেও করার কিছুই নেই।
এ নিয়ে এ জনপদের সাবেক ও বর্তমান ফুটবলাররা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সৈয়দপুর উপজেলার নব্বই দশকে ঢাকা প্রথম বিভাগের মহাখালি ক্লাবের সাবেক ফুটবলার মোঃ মোকছেদ আলী বলেন, দশ মিনিটে বিরতি নিয়ে পরে দশ মিনিট। এতে বিশ মিনিটের খেলায় কোন ভাল ফুটবলার উঠে আসবেনা। বরঞ্চ হতাশায় অনেক উদিয়মান ফুটবলার ঝরে যাবে। তাই সময় স্বল্পতা পদ্ধতির এ ফুটবল প্রতিযোগিতা ফুটবলকে ধ্বংস করবে।

এ নিয়ে সৈয়দপুরের ঐতিহ্যবাহি বৈশাখী সংঘের সাবেক কোচ ও রেফরি মোঃ মকবুল বলেন, তৃনমুল ফুটবল নিয়ে উদাসিন পরিকল্পনায় কখনও জাতীয় দল উন্নত হবে না। তাই মফস্বল থেকেই জাতীয় দলের ব্যাকআপ খেলোয়াড় সৃষ্টিতে সময় নিয়ে খেলা পরিচালনা করা উচিত।

Print Friendly, PDF & Email