CC News

ডোমারে বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী চালককে গলা কেটে হত্যা

 
 

ডোমার, ১৮ সেপ্টেম্বর।। নীলফামারীর ডোমার উপজেলার বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী চালক স্বাধীন ইসলামের (৩৫) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকের উপর তলায় তার শয়নকক্ষ থেকে গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। স্বাধীন ইসলাম রংপুর কারমাইকেল কলেজ রোডের মোঃ বাবু ইসলামের ছেলে। স্বাধীন ইসলাম মাস্টাররোলে ডোমারে দীর্ঘ ৫ বছর হতে বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী চালক হিসাবে কর্মরত।
ডোমার বিদ্যুৎ বিতরন বিভাগের নির্বাহী পরিচালক মোঃ সাইফুল মন্ডল জানান,উপজেলা পরিষদ মাঠ সংলগ্ন আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকের দ্বিতীয় তলার মেসের একটি কক্ষে সে ভাড়া থাকতো। মঙ্গলবার সকাল থেকেই তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায় । এমন কি অফিসেও আসেনি। দিনভর তার কোন সন্ধ্যান না পাওয়ায় বিকালে তার খোঁজে ভাড়া রুমে অফিসের লোকদের পাঠাই। অফিসের লোকজন তার কক্ষের সামনে তার স্যান্ডেল দেখতে পেলে রুমটির দরজার বাইরে থেকে তালাবদ্ধ ছিল। আমি পুলিশে খবর দিলে থানা পুলিশ এসে শয়ন কক্ষের একটি জানালাে কপাট ভাঙ্গা হয়। এ সময় গলায় কাপড় পেচানো রক্তাত্ব মৃতদেহ বিছানায় পরে থাকতে দেখা যায়। দেয়ালে রক্তের ছাপ।এদিকে তার হত্যার খবর ছড়িয়ে পরলে উৎসুক জনতা ভিড় জমায় বাড়ীটির সামনে।
একাধিক সুত্র জানায় গাড়ী চালক স্বাধীন ইসলামের পারিবারিক কলহ চলছিল। সে মাঝে মাঝে রংপুর গেলেও তার স্ত্রী বা সন্তানকে ডোমারে আনেনি। এ ছাড়া গাড়ী চালক স্বাধীন মাদকাসক্ত ছিল। অনেকে মন্তব্য করতে শোনা যায় মাদক নিয়ে কোন্দলে অপর কোন মাদকাসক্তরা তাকে গলা কেটে হত্যাও করতে পারে।
ডোমার থানার ওসি মোকছেদ আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এটি পরিকল্পিত হত্যা কান্ড। গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email