CC News

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে শিশু চুরি

 
 

রংপুর: একদিনের নবজাতক শিশুকে কোলে নিয়ে আদর করতে করতে উধাও হয়ে গেছেন অজ্ঞাত এক নারী। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাদের জন্য সন্দেহভাজনক এক লিফট আপারেটরকে আটক করেছে পুলিশ। শিশু চুরির এই ঘটনাটি ঘটেছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বুধবার (১০ অক্টোবর) সকালে হাসপাতালের গাইনী বিভাগ থেকে শিশুটি চুরি হয়। এ ঘটনায় কোতয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। বিষয়টি তদন্তে দুই সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন হাসপাতাল কর্তপক্ষ।
হাসপাতাল ও থানা সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাড়িরঝাড়া গ্রামের পরশ চন্দ্রের স্ত্রী সুধারানী মঙ্গলবার সন্তান জন্ম দেয়ার জন্য আসে। তাকে ১১ নং প্রসুতি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে ওই রাতে সিজারের মাধ্যমে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয় সুধা রানী। বুধবার সকালে নবজাতককে নিয়ে আত্মীয় স্বজনরা বারান্দায় এলে একজন অজ্ঞাত মহিলা শিশুটিকে কোলে নিয়ে আদর করতে থাকে। এক পর্যায়ে মহিলাটি বাচ্চাটিকে নিয়ে উধাও হয়ে যায়। পরশ চন্দ্র তার আত্মীয় স্বজন বিষয়টি সাথে সাথে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানালে হাপাতালের পরিচালক অভিযোগটি কোতয়ালী থানায় নথী ভুক্ত করার জন্য পাঠিয়ে দেন।
অভিযোগ পাওয়ার পরপরই পুলিশ হাসপাতালে এসে সিসি ক্যমেরার ভিডিও ফুটেজ ও লিফট অপারেটর কাইয়ুমকে আটক করে। এঘটনায় হাসপাতাল কর্তপক্ষ দুই সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন, প্রসুতি বিভাগের আবাসিক চিকিৎসক ডাক্তার শামিম ও সেবা তত্ববধায়ক মোসলেমা বেগম। তাদের ৭দিনের মধ্যে তদন্ত রির্পোট দিতে বলা হয়েছে।
রমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. অজয় রায় জানান,আমারা অভিযোগ পাওয়ার পরপরই বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছি। বাচা উদ্ধারের সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে।
কোতয়ালী থানার ওসি তদন্ত মোক্তারুল আলম জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই আমরা তদন্তে নেমেছি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজন লিফট অপারেটরকে আটক করা হয়েছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে নবজাতককে উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

Print Friendly, PDF & Email