CC News

চালু হচ্ছে ঠাকুরগাঁও-ঢাকা ডুয়ালগেজ রেলপথ

 
 
সিসি ডেস্ক, ০৪ নভেম্বর।। অবশেষে র্দীঘ ছয় বছর পর ঠাকুরগাঁও-ঢাকা ডুয়ালগেজ চালু হচ্ছে আন্ত:নগর ট্রেন চলাচল। অপেক্ষার পরে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড়বাসীর স্বপ্নের দাবী পঞ্চগড়-ঢাকা সরাসরি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচলের দিন নির্ধারণ করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।
এর আগে গত ২৩ অক্টোবর রেলওয়ের পশ্চিম অঞ্চলের মহাব্যবস্থাপকের কাছে পাঠানো রেলওয়ের ট্রাফিক ট্রান্সপোর্টেশন বিভাগের উপ-পরিচালক খালিদুন নেছা স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, ঢাকা-দিনাজপুরের মধ্যে চলাচলকারী দ্রুতযান এক্সপ্রেস এবং একতা এক্সপ্রেস ট্রেন একই ধরনের কোচ, কম্পোজিশনে লাল-সবুজ রংয়ে ইন্দোনেশিয়ান কোচ দিয়ে পরিচালনা করা হবে। বর্তমানে একতা এক্সপ্রেস ট্রেন সোমবার আর দ্রুতযান বুধবার বন্ধ থাকে। ট্রেনগুলো তিনটি রেক দিয়ে চালানো হবে। নতুন সময়সূচিতে এই দুটি ট্রেনের সাপ্তাহিক কোনো বন্ধ থাকবে না।
ঠাকুরগাঁও রেলস্টেশন মাস্টার আকতারুল ইসলাম বলেন, ঢাকা-পঞ্চগড় রুটে সরাসরি আন্তঃনগর ট্রেন চালুর প্রয়োজনীয় সব কার্যক্রম দ্রুত এগিয়ে চলছে। আশা করা হচ্ছে উদ্বোধনের আগেই সব কাজ সম্পন্ন হবে। ১০ নভেম্বর সকাল ৭টা ২০ মিনিটে পঞ্চগড়ে দ্রুতযান এক্সপ্রেস উদ্বোধনের পর ৭টা ৫৮ মিনিটে ঠাকুরগাঁওয়ে পৌঁছবে এবং ৮টায় ঠাকুরগাঁও থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রাওনা হবে। আবার রাতে একতা এক্সপ্রেস পঞ্চগড় থেকে ঠাকুরগাঁও হয়ে ৯টা ৪০ মিনিটে ছেড়ে যাবে।
এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও-১ (সদর) আসনের এমপি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, সাধারণ মানুষের র্দীঘ দিনের দাবি অবশেষে পূরণ হতে যাচ্ছে। এই সরকার আবারো ক্ষমতা আসলে ঠাকুরগাঁওয়ের জন মানুষের সকল প্রত্যাশা পূরণ হবে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মিটারগেজ রেলপথকে আধুনিকায়ন ও ডুয়ালগেজে রূপান্তরিত করতে ২০১০ সালের অক্টোবরে তমা কনস্ট্রাকশন ও ম্যাক্স কনস্ট্রাকশন কাজ শুরু করে। দুইবার নির্মাণকাজের ব্যয় ও মেয়াদ বাড়িয়ে ২০১৪ সালের কাজ শেষ হয় ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে। আর এ কাজে ব্যয় ধরা হয়েছে  ৯৮২ কোটি টাকা।
Print Friendly, PDF & Email