CC News

ডিমলা থানার ওসি এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন

 
 

সিসি নিউজ, ২৪ ফেব্রুয়ারী।। নীলফামারীর ডিমলা থানা অফিসার ইনচার্জ মফিজ উদ্দিন শেখ। ১৯৮৭ সালে পুলিশ বিভাগে কনস্টবল পদে চাকুরিতে প্রবেশ করে ধাপে ধাপে পদোন্নতিতে তিনি ২০১৮ সালে ২০ মার্চ পুলিশ পরিদর্শন হিসাবে বর্তমানে নীলফামারীর ডিমলা থানায় ওসির দায়িত্ব পালন করছেন (তার বিপি নম্বর ৬৬৮৭০৪৮৮১১)। তিনি এবার এসএসসি পরীক্ষায় উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলা শহরে অবস্থিত আলহাজ্ব মোবারক হোসেন উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে এ বছর অংশ নিয়েছেন। দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত শিক্ষার শেষ নেই এই প্রবাদ বাক্যকে ধারন করেই তিনি এই পরীক্ষায় অংম নিয়েছেন। শুক্রবার(২২ ফেব্রুয়ারী) বিকালে অনুষ্ঠিত বাংলা দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষায় ওই কেন্দ্রের ১ নম্বর রুমে বসে পরীক্ষা দেন তিনি।
এ ব্যাপারে মফিজ উদ্দিন শেখের সঙ্গে কথা হলে তিনি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান এতে লজ্জার যেমন কিছু নেই তেমনি জ্ঞান অর্জনের জন্য নির্দিষ্ট কোনো বয়সসীমাও নেই। আমি আমার পূর্বের শিক্ষাগত যোগ্যতা দিয়ে পুলিশ পরিদর্শকের পদোন্নতি নিয়ে ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হয়েছি। এরপরও ব্যক্তিগত ইচ্ছায় আবারও এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছি।
কথা প্রসঙ্গে তিনি জানান ১৯৮৭ সালে পুলিশের কনষ্টবল পদে যোগদান করে। এ,এসআই হিসাবে পদোন্নতি পায় ১৯৯৬ সালে। ২০০১ সালে এসে এসআই হিসাবে পদোন্নতী হয় তার। পুলিশ বিভাগের কাজের দক্ষতায় ২০১৩ সালে তিনি সহকারি পুলিশ পরিদর্শক হিসাবে বিভিন্ন থানায় ওসি (তদন্ত) হিসাবে দায়িত্ব পালন কালে তার বদলী হয় নীলফামারীর ডিমলা থানায়। এই থানায় ২০১৭ সালের ১৭ মার্চ যোগদান করেছিলেন। এখানে ওসি তদন্ত হিসাবে দায়িত্ব পালন কালে তিনি পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ২০ মে পুলিশ পরিদর্শক হিসাবে এই থানায় ওসির দায়িত্ব পেয়ে কর্মরত রয়েছেন।
তিনি বলেন উন্মুক্ত বিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৭ সালে জলঢাকার আলহাজ্ব মোবারক হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে তিনি ভর্তি হন (রোল নং-৭)।২০১৮ সালের প্রথম সেমিস্টারের ও চলতি বছরের ২২ ফ্রেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় সেমিস্টারের বাংলা দ্বিতীয়পত্র বিষয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। পাশাপাশি অন্যান্য পরীক্ষা গুলোতে তিনি অংশ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। তিনি অকপটে বললেন পরীক্ষায় তার রোল নং-১৭-০-১০-২৪৮-০০৭। প্রবেশপত্রে পরীক্ষার্থীর নাম হিসাবে রয়েছে মফিজ উদ্দিন শেখ, পিতা- রজব আলী শেখ ও মায়ের নাম রয়েছে নুরুননেছা বেগম।
তার সঙ্গে কথা বলার সময় দেখা যায় তিনি সুন্দরভাবে গুছিয়ে বাংলা যেমন বলতে পারেন,তেমনি ভাবে ইংরেজিতেও কথা বলেন।
এই পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের বিষয়ে তিনি নীলফামারী পুলিশ সুপারের লিখিত অবেদনে অনুমতি গ্রহন করেছেন বলে জানান।
জলঢাকা আলহাজ্ব মোবারক হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রোকনুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ২০১৭ সালে মফিজ উদ্দিন শেখ বাংলাদেশ উন্মক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ৯ম শ্রেণিতে ভর্তি হন। দুইটি সেমিস্টারের পরীক্ষায় এবার পরীক্ষা দিচ্ছেন তিনি। বর্তমানে ওই কেন্দ্রে দ্বিতীয় সেমিস্টারে মোট ৯৫ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।

Print Friendly, PDF & Email