CC News

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধার করলো বসুন্ধরা

 
 

সিসি নিউজ, ২৪ ফেব্রুয়ারী।। ভাগ্যজোড়ে আবাহনী ঢাকাকে হটিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধার করলো বসুন্ধরা কিংস। আবাহনী আট ম্যাচে ছয় জয় ও দুই পরাজয়ে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে শীষে ছিল। আজ রবিবার নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে বিকাল তিন টায় শুরু হওয়া ম্যাচে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘকে ৩-২ ব্যবধানে হারায় বসুন্ধরা কিংস।
খেলার শুরুতেই দুই, চার ও ছয় মিনিটে বসুন্ধরা কিংসের তিনটি দূর্বল শুট গ্রিপ করে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের গোল রক্ষক মাজহারুল ইসলাম হিমেল। এরপর প্রায় ১৭ মিনিট কোন দলই বল প্রতিপক্ষের ডি-বক্সের ভিতর প্রবেশ করাতে পারে নাই। খেলার ২৩ মিনিটে আরামবাগের নাইজেরিআন খেলোয়ার মাঠের ডান দিকে প্রায় চার জন খেলোয়ারকে কাটিয়ে বল নিজের নিয়ন্ত্রনে নিয়ে বসুন্ধরার ডি-বক্সে ঢুকে সেকেন্ড বারে ফরোয়ার্ড আরিফুরের উদ্দ্যেশে চিপ করে। আরিফুর ডান পায়ে আলতো ভাবে বাড়িয়ে দিলে বল ঢুকে যায় বসুন্ধরার জালে। এতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। পরের মিনিটেই সমতায় ফিরতে পারতো বসুন্ধরা। যদিনা আরামবাগের গোল বারে লেগে বল ফিরে না যেত। তবে ভাগ্য যখন সহায়! গোল ঠেকায় কে? ২৫ মিনিটে আরামবাগের নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার এনকুরুমেহ কিংসলে নিজেদের বিপদজনক বক্সের ভেতর হতে বল বাইরে ফিরিয়ে দিতে হেড করলে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে যায়। এতেই সমতায় ফিরে বসুন্ধরা কিংস। এরপর ব্যবধান বাড়াতে মড়িয়ে হয়ে উঠে স্বাগতিকরা। ৩৪ মিনিটে রাশিয়া বিশ^কাপ খেলা কোস্টারিকান ড্যানিয়েল কলিনড্রেস বল বাড়িয়ে দিলে দেশীয় ফরোয়ার্ড মতিন মিয়া লীগে নিজের চতুর্থ গোল করেন। এতেই বসুন্ধরা ২-১ গোলে ব্যবধান বাড়ায়। ব্যবধান বাড়িয়েও ক্ষান্ত হয় নাই স্বাগতিক কিংস। ৪২ মিনিটে তিন নম্বর গোল করা মতিন মিয়াই বল উঠিয়ে মারে আর ডি-বক্সের ভিতরে আরামবাগের গোল রক্ষককে বোকা বানিয়ে ব্রাজিলিয়ান জায়ান্ট মারকোস কোস্টা হেড দিয়ে গোল করেন। সাথে সাথে স্বাগতিক দর্শকরা গ্যালারিতে গোল উৎসবে মেতে উঠে। স্কোর বোর্ডে ৩-১ গোল নিয়েই প্রথমার্ধ্য শেষ হয়। দ্বিতীয়ার্ধের নয় মিনিটে বসুন্ধরার অধিনায়ক ড্যানিয়েল কলিনড্রেসের একটি অসাধারন শট রুখে দেয় আরামবাগের গোলরক্ষক হিমেল। খেলার ৫৩ মিনিটে আরামবাগের ফরেইন খেলোয়ার ইডেনি চিনেডুর বাড়িয়ে দেওয়া বলে নিজের পাপমোচন করে আত্মঘাতি গোল করা সেই নাইজেরিয়ান কিংসলে। এতেই স্কোর বোর্ড দ্বারায় ৩-২। এরপর দুই দলেই গোল করতে আক্রমনাত্বক খেলা শুরু করে। খেলার ৮৫ মিনিটে বসুন্ধরার বি-বক্সের পাশ হতে আরামবাগের অধিনায়ক রবিউল হাসানের ফ্রি-কিক বসুন্ধরার গোলরক্ষক জিকোর হাত লেগে বক্সের ভেতর পড়ে থাকলে বসুন্ধরার ২০ নম্বর জার্সিধারী কিরজিসটানের মিডফিল্ডার বখতিয়ার বল বাইরে বের করে দেয়। তার দুই মিনিট পর আরামবাগের ফরোয়ার্ড পাউল ইমিলি বসুন্ধরার চার জন খেলোয়ারকে কাটিয়ে বল নিয়ে সামনে পায় একা গোলরক্ষককে। কিন্তু ভাগ্য সহায় ছিল না আরামবাগের। গোলরক্ষক জিকোর পায়ে লেগে গোল বারের উপর দিয়ে চলে যায় সিমানার বাইরে। শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হওয়ায় ভাগ্যের উপর নির্ভর করে ৩-২ ব্যবধানে আবারো নিজেদের শীর্ষস্থান পুরনরুদ্ধার করলো বসুন্ধরা কিংস।
এপর্যন্ত সাত ম্যাচে ছয় জয় ও এক ড্রয়ে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার সবার উপরে বসুন্ধরা কিংস ও আট ম্যাচে চার জয় ও সমান পরাজয় নিয়ে পাঁচ নম্বরে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ।

Print Friendly, PDF & Email