CC News

বাইসাইকেল কিক গোলে বসুন্ধরার জয়

 
 

নীলফামারী, ৫ মার্চ।। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড মার্কোস ডি কোস্টার বাইসাইকেল কিক গোলে আবারো পয়েন্ট টেবিলের শীষে উঠে গেল বসুন্ধরা কিংস। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে তিন টায় নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেডকে ১-০ গোলে হারিয়ে আবাহনী ঢাকাকে হটিয়ে আবারো শীষস্থান নিজেদের করে নিল বসুন্ধরা। আবাহনী ১০ ম্যাচে আট জয় ও দুই পরাজয়ে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে র‌্যাংকিংয়ে দুই নম্বরে। আর বসুন্ধরা নয় ম্যাচে আট জয় ও এক ড্রয়ে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে।
খেলার প্রথমার্ধে বসুন্ধরা কিংস আক্রমান্ত¡ক খেললেও গোলের কোন সুযোগ তৈরী করতে পারে নাই। এমনকি প্রতিপক্ষের ডি-বক্সেও বল ভেড়াতে যথেষ্ট কষ্ট হয়েছে তাদের। কিন্তু শেখ রাসেল ডিফেন্সিভ খেলেও কয়েকটি আক্রমন করে বসুন্ধরার কাঁপুনি ধরিয়ে দেয়। চার ও সাত মিনিটে শেখ রাসেলের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড রাফায়েল ওডিইনের দু’টি হেড বসুন্ধরার গোলরক্ষক জিকো তালুবন্দি করে। সেকেন্ডবারে খেলোয়ার থাকলে হয়তো প্রথমার্ধ্যইে এগিয়ে যেতে পারতো শেখ রাসেল। এতে গোল শুন্য নিয়েই দুই দল খেলার প্রথমার্ধ্য শেষ করে।
অস্কার ব্রোজোনের দল, গোল পাবে না, তা কি করে হয়!
দ্বিতীয়ার্ধে অস্কার এ কে রানাকে বসিয়ে অনুগত ইব্রাহিমকে মাঠে নামান। আর ইব্রাহিমেই তুরুপের তাপ হয়ে ৫৭ মিনিটে বল বাড়িয়ে দেয় মর্কোস কোস্টার বুকে। কোস্টা বল রিসিভ করে ফাষ্ট বার হতে গোল করা সম্ভব হবে না ভেবে দেয় এক অসাধারন বাইসাইকেল কিক। এতেই খেলোয়ার ও দর্শকদের চোখ ছানাবড়া হয়ে উঠে। বল চলে যায় শেখ রাসেলের জ¦ালে। স্তব্ধ গ্যালারি মেতে উঠে হুল্লোরে। এরপর শেখ রাসেল শুরু করে আক্রমাত্বক খেলা। আর আক্রমাত্বক খেলা থেকে কিছুটা পিছু হটে বসুন্ধরা। একের পর এক আক্রমন করেও শেষ পর্যন্ত কোন লাভ হয় নাই শেখ রাসেলের। তবে খেলার শেষের প্রায় ১০ মিনিট বল বসুন্ধরার ডি-বক্স ও আশপাশ^ ঘোরাফেরা করে। এতেই স্বাগতিক দর্শকদের হৃদকম্পন উঠানামা হতে খাকে। এই বুঝি শোধ হলো গোল! তবে শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলেই খেলা শেষ হয়।
বসুন্ধরা কিংস নয় ম্যাচে আট জয় ও এক ড্রয়ে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীষে আর সমান ম্যাচে ছয় জয়, দুই ড্র ও এক পরাজয়ে তিনে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেড।

Print Friendly, PDF & Email