• রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:২৫ পূর্বাহ্ন |

সন্তর্পণে পীরের দরবারে এরশাদ

Arshad-pr_12101ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ একজন পীরভক্ত মানুষ।পীরের প্রতি তার অগাধ বিশ্বাষ ও ভক্তি রয়েছে।তাইতো তিনি ১৯৮২ সালের ২৪ মার্চ ক্ষমতা নেওয়ার পর ফরিদপুরের আটরশি পীরের হাতে হাতে রেখে মুরীদ হয়েছিলেন। আটরসি পীর শাহসূফী হাশমত উল্লাহর সঙ্গে একান্ত সান্নিধ্যে সময় কাটাতেন এরশাদ। এবার প্রধান বিরোধী দল হয়ে এরশাদ সন্তর্পণে দোয়া নিতে সায়েদাবাদের পীরের দরবারে চলে গেলেন।
বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বারিধারার বাসা থেকে বেরিয়ে সরাসরি চলে যান সায়েদাবাদের পীর সাইদুর রহমানের কাছে। ১০টার দিকে পৌঁছান সায়েদাবাদী পীরের দরবারে। পীরের একান্ত সান্নিধ্যে কাটান প্রায় ১ ঘণ্টা। এ সময় এরশাদের সঙ্গে দলীয় নেতাকর্মী না থাকলেও ছিলেন ব্যক্তিগত একজন বিশ্বস্ত সহকারী।
এরশাদের সায়েদাবাদের পীরের দরবারে সময় কাটানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এরশাদের প্রেস এ- রাজনৈতিক সেক্রেটারি সুনীল শুভরায়।
পরে সকাল ১১টার দিকে রওনা দেন নিজের কেনা কাকরাইলে জাতীয় পার্টির অফিসের দিকে। গাড়িতে বসেই অফিসের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। সেখানে কিছুক্ষণ থেকে চলে যান সরাসরি বনানীর কার্যালয়ে।
দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দীর্ঘ ৪২ দিন পর বনানীর রাজনৈতিক কার্যালয় রজনীগন্ধাতে দাপ্তরিক কাজে প্রবেশ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এ সময় তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।
প্রসঙ্গত : ৩ ডিসেম্বর বনানীর কার্যালয় থেকে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছিলেন এরশাদ। এরপর থেকেই তিনি বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে ছিলেন। সেখান থেকে ১২ ডিসেম্বর র‌্যাব এরশাদকে সিএমএইচ এ নিয়ে যায়। পরে ১২ জানুয়ারি এরশাদ সিএমএইচ থেকে বারিধারায় ফেরেন। এরপর আজ সকালে যান সায়েদাবাদের পীর সাইদুর রহমানে কাছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ