• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৬:১৭ অপরাহ্ন |

রংপুর বিভাগে এবার গমের চাষ কমেছে

Gomরংপুর: রংপুর বিভাগে চলতি মৌসুমে গমের চাষ কমেছে। গত মৌসুমে এক লাখ ২৫ হাজার ১৩০ হেক্টর জমিতে গমের চাষ হলেও এ মৌসুমে ২০৯ হেক্টর কম জমিতে গমের চাষ হয়েছে। তাই এবার গমের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লাখ ৬১ হাজার ৬১৭ মেট্রিক টন।
গমের বাজারদর ভালো থাকলেও চাষ কমে যাওয়ার জন্য কৃষি বিভাগের একটি সূত্র কৃষি উপকরণ সংগ্রহে প্রতিবন্ধকতা অন্যতম কারণ বলে মনে করছে।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর রংপুর অঞ্চল সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩-১৪ রবি মৌসুমে মোট এক লাখ ২৪ হাজার ৯২১ হেক্টর জমিতে গম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লাখ ৬১ হাজার ৬১৭ মেট্রিক টন। এর মধ্যে রংপুরে তিন হাজার ১৭০ হেক্টর, গাইবান্ধায় তিন হাজার ২০ হেক্টর, কুড়িগ্রামে ১২ হাজার ৮৯৬ হেক্টর, লালমনিরহাটে এক হাজার ৫৯০ হেক্টর, নীলফামারীতে চার হাজার ৯৩০ হেক্টর, দিনাজপুরে ১৯ হাজার ৮২০ হেক্টর, ঠাকুরগাঁওয়ে ৬০ হাজার ৯০ হেক্টর ও পঞ্চগড়ে ১৯ হাজার ৪০৫ হেক্টর জমিতে গমের চাষ হয়েছে।
গমের বাজার ঊর্ধ্বমুখী থাকায় রবি মৌসুমে চাষ বৃদ্ধি পাওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে মিঠাপুকুর উপজেলার গোপালপুরের কৃষক আমিনুল ইসলাম বলেন, অন্যান্য ফসলের চেয়ে গমের ফলন কম হয়, কিন্তু খরচ বেশি। তাই এ বছর গমের পরিবর্তে আলু চাষ করেছেন।
তিনি আরো বলেন, এলাকায় অনেকে হরতাল-অবরোধের কারণে ডিজেল, সার ও গমবীজ সংগ্রহ করতে না পারায় সময়মতো গম চাষ করতে ব্যর্থ হয়েছেন।
গঙ্গাচড়া উপজেলার সালাপাক গ্রামের কৃষক মিজানুর রহমান ও জয়নাল আবেদীন বলেন, কয়েক বছর থেকে পশ্চিমা বাতাস না হওয়ায় গমের   দানা আশানুরূপ হয় না। তাছাড়া উৎপাদন খরচ বেশি, কিন্তু ফলন কম। তাই দাম ভালো থাকা সত্ত্বেও কৃষক অন্যান্য রবিশস্য উৎপাদনে বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছেন।
আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের একাধিক কর্মকর্তা নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, মূলত রাজনৈতিক অস্থিরতায় কৃষি উপকরণ সংগ্রহে কৃষক ভোগান্তিতে পড়ায় গম চাষে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। লাগাতার হরতাল-অবরোধে সময়মতো গমবীজ সংগ্রহ করতে না পারা, ডিজেলের দু®প্রাপ্যতা ও চড়া দামের কারণে জমি তৈরি বাধাগ্রস্ত হয়।        অর্থনীতি প্রতিদিন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ