• রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:২৮ অপরাহ্ন |

১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার রায় বৃহস্পতিবার : নিজামী ও বাবর চট্টগ্রামে

100-Ten-track-armsসিসি ডেস্ক: বৃহস্পতিবার ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার রায় ঘোষণা হবে চট্টগ্রামের বিশেষ ট্রাইব্যুনালে। প্রায় ১০ বছর বিচারিক কার্যক্রম শেষে চাঞ্চল্যকর মামলাটির ফয়সালা হতে যাচ্ছে। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের প্রভাবশালী দুই মন্ত্রীসহ অনেক রথী-মহারথীরও ভাগ্য নির্ধারণ হবে এদিন।

ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক এস এম মজিবুর রহমান বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্যে রায় দিতে পারেন বলে জানা গেছে। এরই মধ্যে মামলার আসামি সাবেক শিল্পমন্ত্রী ও জামায়াতের নেতা মতিউর রহমান নিজামী এবং সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুত্ফুজ্জামান বাবরকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়েছে। রায়কে ঘিরে আদালত ভবন, কারাগার, বিচারকের বাসভবনসহ নগরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অতিরিক্ত সদস্য নামিয়েছে পুলিশ।

চট্টগ্রাম কারা সূত্র জানায়, বুধবার সন্ধ্যা সাতটা পাঁচ মিনিটে দুটি মাইক্রোবাসে করে নিজামী ও বাবরকে কড়া নিরাপত্তায় কারাগারে আনা হয়। আগের দিন সন্ধ্যায় মামলার আসামি প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের (ডিজিএফআই) সাবেক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল (অব.) রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরী ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) সাবেক মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আবদুর রহিমকে ঢাকা থেকে আনা হয়েছে। তাঁরা সবাই কারাগারের ডিভিশন ওয়ার্ডে রয়েছেন বলে জানিয়েছে কারা সূত্র।

চারদলীয় জোট সরকারের সময় ২০০৪ সালের ১ এপ্রিল গভীর রাতে চট্টগ্রামের সিইউএফএল জেটিঘাটে ধরা পড়ে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অস্ত্রের চালান। এ ঘটনা চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থানায় অস্ত্র  ও চোরাচালান আইনে পৃথক দু’টি মামলা হয়।

চার জনের মৃত্যুর পর বর্তমানে অস্ত্র মামলায় আসামি ৫০ জন এবং চোরাচালান মামলায় ৫২ জন। দু’টি মামলাতেই আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা। আর আসামিরা বেকসুর খালাস পাবেন বলে তাদের আইনজীবীদের আশা।

হাজতে আরো যাঁরা রয়েছেন, এনএসআই’র  সাবেক পরিচালক অবসরপ্রাপ্ত উইং কমান্ডার সাহাবুদ্দিন আহমেদ, সাবেক উপ-পরিচালক অবসরপ্রাপ্ত মেজর লিয়াকত হোসেন, সাবেক মাঠকর্মকর্তা আকবর হোসেন, সিইউএফএল’র সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মহসিন উদ্দিন তালুকদার, সাবেক জিএম (প্রশাসন) একেএম এনামুল হক, চোরাচালানী হাফিজুর রহমান হাফিজ, অস্ত্র খালাসের শ্রমিক সরবরাহকারী দীন মোহাম্মদ।

মামলায় জামিনে থাকা আসামিরা হলেন, হাজী মো, আব্দুস সোবহান, সানোয়ার হোসেন চৌধুরী, দিলদার হোসেন চৌধুরী, মরিয়ম বেগম ওরফে বদনি মেম্বার, জসীম উদ্দিন ওরফে জসীম, আব্দুল আজিজ, মো. আকতার, মো. জাহাঙ্গীর, নুরুল আবছার ওরফে আবছার মেম্বার, আরজু মিয়া প্রকাশ পাগলা, এজাহার মিয়া, মুজিবুর রহমান ভুলু, শেখ মোহাম্মদ, ফজল আহম্মেদ চৌধুরী, আকবর আলী, বাদশাহ মিয়া, ওসমান মিস্ত্রি, আব্দুল মান্নান, কবির আহম্মদ, মো. রফিক, মনির আহম্মদ, আব্দুল মালেক, মঞ্জুরুল আলম, সালেহ জহুর প্রকাশ গুরা মিয়া, ফিরোজ আহম্মদ, সাইফুদ্দিন ও কামাল মিয়া।

পলাতক আসামিরা হচ্ছেন, উলফা’র সামরিক কমান্ডার পরেশ বড়ুয়া, সাবেক ভারপ্রাপ্ত শিল্প সচিব নুরুল আমিন, প্রদীপ কুমার দাশ, প্রকাশ বজ্রগোপাল, নূর নবী, সিরাজুল ইসলাম, হেলাল উদ্দিন, বাবুল মিয়া, আব্দুর রহিম মাঝি, আব্দুস সবুর, মো. শাহআলম, মো, সোবহান, ও শাহজাহান।

এছাড়া চোরাচালান মামলায় ১১ জন হাজতে, ২৮ জন জামিনে এবং ১৩ জন পলাতক রয়েছেন। অস্ত্র আটক মামলার সবাই চোরাচালান মামলাতেও আসামি হিসেবে আছেন। অতিরিক্ত দুই আসামি হচ্ছেন পলাতক আবুল হোসেন এবং জামিনে থাকা সফিকুর রহমান ওরফে সফিউর রহমান।

প্রায় ১০ বছর ধরে একসঙ্গে চলে মামলা দু’টির স্বাক্ষ্যগ্রহণ, যুক্তিতর্কসহ সব কার্যক্রম। গত ১৩ জানুয়ারি আদালত বৃহস্পতিবার রায়ের দিন রাখেন।

এদিকে, রায়কে কেন্দ্র করে আগাম সতর্কতামূলক কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। নগরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে প্রায় ৬০০ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট বিচারকের আদালত ও বাসভবন ঘিরে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে ‘রাতদিন ২৪ ঘণ্টার’ এই নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (কোর্ট) মোহাম্মদ রেজাউল মাসুদ জানিয়েছেন, ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার বিচারকের আদালত ও বাসভবনে দুই শিফটে ১০ জন করে ২০ জন পুলিশ নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছে। এছাড়া বিচারকের চলাচলের সময়ও পুলিশি স্কট বাড়ানো হয়েছে। কড়া পুলিশি নজরদারিতে রয়েছে বিচারকের বাসভবন।

জানা গেছে, বিচারকের বাসভবন নিয়মিত সিকিউরিটি গার্ড, গানম্যানের পাশাপাশি ও পাঁচলাইশ থানা পুলিশের মোবাইল টিমের সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রয়েছে। বাসার সামনে ও পেছনে ১০ জন পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে ২৪ ঘণ্টা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ