• রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন |

ইইউ’র ক্ষতি ১২ হাজার কোটি ইউরো

EUআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউরোপে উদ্বেগজনক মাত্রায় বেড়েছে দুর্নীতি। এর ফলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) দেশগুলোতে দুর্নীতির কারণে ১২ হাজার কোটি ইউরোর সমপরিমাণ আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। ইউরোপীয় কমিশন (ইসি) এ তথ্য জানিয়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, ইইউয়ের স্বরাষ্ট্রবিষয়ক কমিশনার সেসিলিয়া মোলস্ট্রম ইউরোপের দুর্নীতির সমস্যা নিয়ে একটি পূর্ণ প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছেন। ওই প্রতিবেদনে তিনি বলেন, দুর্নীতির কারণে ইইউয়ের প্রকৃত ব্যয় ১২ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে।

ইসির জরিপে দেখা যায়, অংশগ্রহণকারীদের তিন-চতুর্থাংশের মত, দুর্নীতি ব্যাপক মাত্রায় বেড়েছে। আর অর্ধেকের বেশি লোকের মত, দুর্নীতি বেড়েছে। সুইডেনের গোয়েটেবর-পস্টেন সংবাদপত্রে লেখা এক নিবন্ধে মোলস্ট্রম বলেন, ‘ইউরোপে এ সমস্যার ব্যাপকতা উদ্বেগজনক। যদিও সুইডেন সবচেয়ে কম সমস্যাগ্রস্ত দেশ।’

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ইউরোপে দুর্নীতির কারণে ইইউকে সংস্থাটির বাজেটের সমপরিমাণ অর্থ গচ্ছা দিতে হচ্ছে। কমিশন ইইউর সদস্যভুক্ত ২৮টি দেশের সবগুলোর ওপরই জরিপ চালায়। কমিশন বলছে, এবারই তারা সদস্য দেশগুলোর ওপর এমন জরিপ চালিয়েছে।

কমিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাজ্যের এক হাজার ১১৫ জন লোকের মধ্যে মাত্র ৫ শতাংশ লোক বলেছেন, তাঁদের ঘুষ দিতে হয়েছে। শতকরা হিসেবে এ সংখ্যা এক ভাগেরও কম। ইউরোপে এটিই ছিল সবচেয়ে ভালো ফলাফল। তবে জরিপে অংশগ্রহণকারী ৬৪ শতাংশ ব্রিটিশ বলেছেন, তাঁরা মনে করেন যুক্তরাজ্যেও দুর্নীতি ব্যাপক মাত্রায় ছড়াবে। আর জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৭৪ ভাগও একই মত দিয়েছেন। আরো কয়েকটি দেশে বেশ কিছু সংখ্যক মানুষ ব্যক্তিগতভাবে ঘুষ দেয়ার অভিজ্ঞতার কথা বলেছেন।

ক্রোয়েশিয়া, চেক রিপাবলিক, লিথুনিয়া, বুলগেরিয়া, রুমানিয়া এবং গ্রিসে ৬ শতাংশ থেকে ২৯ শতাংশ মানুষ তাদের কাছ থেকে ঘুষ চাওয়া হয়েছে কিংবা ঘুষ দেয়ার কথা চিন্তা করতে হয়েছে বলে মত দিয়েছেন। ঘুষ দুর্নীতি আরো বেশি দেখা গেছে, পোল্যান্ড (১৫ শতাংশ), স্লোভাকিয়া (১৪ শতাংশ) এবং হাঙ্গেরিতে (১৩ শতাংশ)।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ