• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন |

‘তদবিরকারী’ মন্ত্রীর অপসারণ দাবি

bar-logoঢাকা: বিচারাধীন মামলার বিষয়ে বিচারপতিকে টেলিফোনে তদবিরকারী ‘সেই’ মন্ত্রীকে অবিলম্বে মন্ত্রিপরিষদ থেকে বরখাস্ত করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। একই সঙ্গে তাঁর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননা ও ফৌজদারি মামলা দায়েরের দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। বুধবার সমিতির পক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন এই দাবি জানান।

একটি মামলার বিষয়ে সরকারের একজন মন্ত্রী হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিকে টেলিফোন করে প্রভাব বিস্তার করেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিকে একটি মামলার বিষয়ে সরকারের একজন মন্ত্রীর টেলিফোনে প্রভাব বিস্তারের ঘটনা গণমাধ্যমের মাধ্যমে সমিতির দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চের বিচারপতিদের নাম উল্লেখ করে খোকন বলেন, ৩ ফেব্রুয়ারি যমুনা ব্যাংকের বিরুদ্ধে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বরেন্দ্র ইন্টারন্যাশনালের করা একটি অর্থঋণ মামলার শুনানির সময় একজন বিচারপতি উপস্থিত আইনজীবীদের বলেন, তাঁদের কাছে বর্তমান সরকারের একজন মন্ত্রী টেলিফোনে মামলার বিষয়ে একটি পক্ষের স্বার্থে অনুরোধ করায় তাঁরা ওই মামলার শুনানি গ্রহণে বিব্রত বোধ করছেন। ওই মামলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য বিচারপতিরা মামলার নথি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠান।

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, আইনজীবী সমিতি দীর্ঘদিন ধরে বিচার বিভাগের ওপর সরকারের নগ্ন হস্তক্ষেপ বন্ধ করার দাবি জানিয়ে আসছে। এ ঘটনা সমিতির দাবির যৌক্তিকতার প্রমাণ করে। সমিতি ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার স্বার্থে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের ও নিম্ন আদালতের বিচারকদের ওপর সরকারের প্রভাব বন্ধ করার দাবি জানাচ্ছে।

লিখিত বক্তব্যে দাবি করা হয়, ‘সমিতি ওই ঘটনার বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের মাধ্যমে ওই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার ও ফৌজদারি অভিযোগে মামলা করার জন্য প্রধান বিচারপতির প্রতি আহ্বান জানাচ্ছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে খোকন বলেন, তারা ‘বিশ্বস্ত সূত্রে’ জানতে পেরেছেন, সেই মন্ত্রী মহাজোট সরকারের গত মন্ত্রিসভায় ছিলেন, নির্বাচনকালীন সরকারে ছিলেন, বর্তমানেও আছেন।

সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সহসভাপতি এ বি এম ওয়ালিউর রহমান খান, মো. শাহজাদা, সহসম্পাদক রফিকুল হক তালুকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ