• রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:০৬ অপরাহ্ন |

বাংলাদেশকে বিদ্যুৎ দিতে চায় ত্রিপুরা

electricityআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের প্রতি ইতিবাচক মনোভাবের প্রতিদান হিসেবে বাংলাদেশকে বিদ্যুৎ দিতে চান ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে অনলাইন দ্য স্টেটসম্যান।

এতে বলা হয়, ত্রিপুরায় এখন প্রয়োজনের চেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। বাংলাদেশে বিদ্যুতের ঘাটতি রয়েছে।

আগরতলায় ব্যবসায়ীদের এক সমাবেশে মানিক সরকার বলেন, এরই মধ্যে আমরা ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারকে বলেছি যে, ত্রিপুরা বাংলাদেশকে কমপক্ষে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দিতে প্রস্তুত। এ প্রক্রিয়া সম্পাদনে সরকারি উদ্যোগ নিতে বাংলাদেশ সরকারকে জানাতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার।

তিনি আরও বলেন, ত্রিপুরা থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ সরবরাহ দিতে ত্রিপুরার রবীন্দ্রনগর থেকে মাত্র ৯ কিলোমিটার সংযোগ লাইন প্রয়োজন হবে। এ কাজ সম্পন্ন হলেই ত্রিপুরা বিদ্যুৎ সরবরাহ দিতে পারবে বাংলাদেশকে।

মানিক সরকার বলেন, ২০১২ সালে আমি ঢাকা সফর করেছি। সে সময় আমাদের রাজ্য থেকে বিদ্যুৎ কেনার আগ্রহ প্রকাশ করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ বছরের জুন অথবা জুলাইয়ের মধ্যে বিদ্যুতের দুটি বড় প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হলে ত্রিপুরায় কমপক্ষে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উদ্বৃত্ত হবে।

কমিউনিস্ট পার্টি (ইন্ডিয়া-মার্কসিস্ট) দলের পলিটব্যুরোর সদস্য মানিক সরকার বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টনের পক্ষে। কিন্তু এর ঘোরবিরোধী পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মানিক সরকারের মতে, ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের প্রতি বিশেষ আকর্ষণ আছে বাংলাদেশের। তাই বাংলাদেশের এই মনোভাবের ইতিবাচক প্রতিদান দেয়া উচিত ভারতের। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ২০১২ সালে মানিক সরকারকে সম্মানিত করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ