• শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন |

বিশ্বের প্রাচীনতম পিরামিডের সন্ধান

pyramidনিউজ ডেস্ক: বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন পিরামিডের সন্ধান পাওয়া গেছে। দক্ষিণ মিশরের এডফুতে পুরাতত্ত্ববিদেরা এটি খুঁজে পেয়েছেন। তাঁরা বলছেন, এটিই বিশ্বের সর্বাধিক প্রাচীন ধাপ পিরামিড। যায় বয়স গিজার পিরামিডের থেকেও বেশি।

পুরু বালি আর আবর্জনার স্তূপের মধ্যে ঢাকা পড়েছিল এই পিরামিডটি। স্থানীয়রা সেটিকে এক পীরের কবরস্থান বলেই জানত। শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতত্ত্ববিদদের একটি দল ২০১০ সালে এডফুতে খোঁড়াখুঁড়ির কাজ শুরু করে। অতি সম্প্রতি গবেষকেরা নিশ্চিত হন, গিজার পিরামিডের থেকেও বেশি পুরনো পিরামিডের খোঁজ পেয়েছেন তাঁরা।

চার হাজার ছ’শো বছর পুরনো গিজার পিরামিডটিই (যা আবার খুফুর পিরামিড নামেও পরিচিত) এত দিন বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো পিরামিড বলে পরিচিত ছিল। পুরাতাত্ত্বিকদের দলটির সদস্য গ্রেগরি মারুয়ার্ড জানিয়েছেন, গিজার পিরামিডের থেকেও কয়েক দশক আগে তৈরি হয়েছিল এডফুর এই পিরামিড। সম্ভবত ফারাও হুনি বা ফারাও স্নেফ্রুয়ের আমলেই সেটি তৈরি হয়।

গ্রেগরি আরও জানিয়েছেন, মিশরের বিখ্যাত সাতটি প্রাদেশিক পিরামিডের মধ্যে নব্য আবিষ্কৃত এই পিরামিডটি অন্যতম। তাঁর কথায়, ওই সাতটি পিরামিডের গঠনশৈলীরও যথেষ্ট মিল রয়েছে। সম্ভবত পরিকল্পনামাফিক একই সঙ্গে এই পিরামিডগুলো বানানো হয়েছিল।

তবে এত দিন লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা এই পিরামিডের অবস্থা অতি করুণ। তিনটি ধাপে তৈরি এই পিরামিডের পাথরের ব্লকগুলোর অধিকাংশই চুরি হয়ে গেছে। মরু-ঝড় আর প্রতিকূল আবহাওয়ার জন্য পিরামিডের উচ্চতাও অনেকখানি কমে গেছে।

এই পিরামিড তৈরির উদ্দেশ্য নিয়ে এখনও ধন্দে রয়েছেন পুরাতত্ত্ববিদেরা। কোনও ফারাওর মমি সংরক্ষণের জন্য এডফুর পিরামিডটি বানানো হয়নি, এটা মোটামুটি নিশ্চিত হয়েছেন তাঁরা। তবে পিরামিডের তলদেশে বেশ কিছু শিশুকে কবর দেওয়ার চিহ্ন পাওয়া গেছে। পিরামিডের গায়ে হায়রোগ্লিফিক ভাষায় লেখা কিছু চিহ্নের খোঁজও মিলেছে। শিশুগুলির কবর মিলেছে তার নীচেই।

পুরাতত্ত্ববিদরা জানিয়েছেন, এডফুর এই পিরামিডটি অসমাপ্ত। এর ব্যাখ্যায় তাঁরা বলছেন, সম্ভবত গিজায় খুফুর পিরামিড তৈরির কাজ শুরু হওয়ার পর পরই এই প্রাচীনতম পিরামিড তৈরির কাজ তড়িঘড়ি বন্ধ করে দেওয়া হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ