• শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১২:১৭ অপরাহ্ন |

চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন ব্যারিস্টার রফিকুল

Rafiqulঢাকা: চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া। তাঁর বিরুদ্ধে করা পাঁচ মামলার একটি প্রমাণিত হলেই রাজনীতি ছেড়ে দেবেন তিনি।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় রফিকুল বলেছেন, আমার বিরুদ্ধে যে পাঁচটি মামলা রয়েছে তার একটিও যদি প্রমাণিত হয় তাহলে আমি রাজনীতিই ছেড়ে দেব।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য গত মঙ্গলবার কাশিমপুর কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। গত বছরের ৮ নভেম্বর সোনারগাঁও হোটেল থেকে বের হওয়ার পর ব্যারিস্টার রফিকুল আটক হন। পরে বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

আলোচনা সভায় বিএনপি নেতা বলেন, আমি সাড়ে তিন মাস গ্রেপ্তার ছিলাম। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর বাড়িতে বোমা হামলার  দায়ে আমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তিনি বলেন, যেদিন আমাকে গ্রেপ্তার করা হয় সেই দিনও আমি ইনুর সঙ্গে প্রথম আলোর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ছিলাম। তিনি আমার খোঁজখবরও নিয়েছেন। পরে জানলাম তাঁর বাড়িতে বোমা হামলা মামলায় আমাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এটা নির্লজ্জ ঘটনা।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদকে পুরনো বেইমান বলে উল্লেখ করেন ব্যারিস্টার রফিক। তিনি বলেন, এরশাদ আমাকে বলেছিলেন, বৃদ্ধ বয়সে তিনি জাতীয় বেইমান হতে পারবেন না। কিন্তু তিনি তো পুরনো বেইমান। তিনি সিএমএইচে ভর্তি হয়ে চিকিৎসার নামে গলফ খেলে যে নাটক করেছেন তার কোনো মানেই ছিল না।

প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘বিনা বিচারে হত্যাকাণ্ড, মৌলিক অধিকার ও জাতীয় নির্বাচন’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল এর আয়োজন করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ