• বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০৯ পূর্বাহ্ন |

ক্যাশ চেয়েছিলাম গল্পচ্ছলে: চিফ হুইপ

Firojনিউজ ডেস্ক: আগের অবস্থান থেকে সরে এলেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ । তিনি বলেছেন, তার দেয়া বক্তব্য সংবাদপত্রে নেতিবাচকভাবে তুলে ধরা হয়েছে। আমার বক্তব্য নেতিবাচকভাবে তুলে ধরার জন্য সাংবাদিকদের উচিত দুঃখ প্রকাশ করা।
রবিবার জাতীয় সংসদের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আ স ম ফিরোজ এই দাবি করেন।
আ স ম ফিরোজ বলেন, তিনি ‘ক্যাশ’ চেয়েছিলেন গল্পচ্ছলে। একটি পক্ষ তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। পত্রিকাগুলো এ-সম্পর্কিত খবর ছেপে অনৈতিক কাজ করেছে। তিনি বলেন, এলাকায় আওয়ামী লীগের একটি অংশ তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তারা অন্য দলের সহযোগিতায় চক্রান্ত করছে। বিভিন্ন মিডিয়া তাঁর বক্তব্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ব্যবহার করে নেতিবাচক ইঙ্গিত দেওয়ার চেষ্টা করেছে। যারা চরিত্র হননের চেষ্টা করেছে, তাদের দুঃখ প্রকাশ করা উচিত।
নিজেকে জাতীয় পর্যায়ের নেতা দাবি করে চিফ হুইপ বলেন, ‘জাতীয়’ ও ‘আন্তর্জাতিক’ভাবে যারা পত্রিকা পড়ে, তাদের মধ্যে একটা ‘মিস ধারণা’র সৃষ্টি হবে। তিনি বলেন, ‘সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য আমার এলাকায় ২৫-৩০ হাজার লোক জমায়েত হয়েছিল। উন্মুক্ত ময়দানে আয়োজিত অনুষ্ঠানটিতে কেবল ফুল ও ক্রেস্ট গ্রহণ করতে করতে প্রায় সন্ধ্যা হয়ে যায়। অন্ধকার নেমে আসলে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিতে হবে। এই তাগাদা থেকে সভামঞ্চে ফুল ও ক্রেস্ট নিয়ে ভিড় জমানো একেবারে কাছের নেতা-কর্মীদের গল্পের ছলে ফুল ও ক্রেস্টের পেছনে অর্থ খরচ না করে দলের কাজে অর্থ ব্যয়ের পরামর্শ দিই।’
আ স ম ফিরোজ দাবি করেন, মিডিয়াগুলো যা বলতে চেয়েছে, তিনি আদৌ সেভাবে কথাগুলো বলেননি। পত্রিকাগুলো যেভাবে সংবাদ ছেপেছে, তাতে করে তাঁর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। চিফ হুইপ জনসমক্ষে এসব কথা বলতে পারেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি আমার প্রতিবেশীর সঙ্গে কথা বললেও যদি এভাবে ছাপা হয়, তাহলে তা দুঃখজনক। এ রকম হলে তো রাজনীতিবিদ হিসেবে আমাদের মুখ সেলাই করে রাখতে হবে।’
শুক্রবার নিজ নির্বাচনী এলাকা পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা সদরের সরকারি পাবলিক মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে আ স ম ফিরোজকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়। ওই অনুষ্ঠানে তিনি প্রকাশ্যে মাইকে ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘আগামীকাল (শনিবার) দলীয় কার্যালয়ে সকাল নয়টা থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত বসব। যদি কেউর উপঢৌকন দেওয়ার ইচ্ছা থাকে, তবে আর এই ক্রেস্ট না। ক্যাশ (নগদ টাকা) চাই, ক্যাশ চাই।’
চিফ হুইপ আরও বলেছিলেন, ‘বোঝেন নাই? নির্বাচন করতে গেলে অনেক লাগে। কাজেই ক্যাশ দিয়েন, খুব ভালো হইবে। কাল (শনিবার) দেখা হবে সবার সঙ্গে। আজ আর কোনো ক্রেস্ট নেব না। সমস্ত ক্রেস্ট আমি পরে নেব।’
উৎসঃ   ঢাকাটাইমস২৪


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ