• সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১১:৫৪ অপরাহ্ন |

বিদেশি উপহার সংরক্ষণে তোষাখানা নির্মাণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

Bongo

ঢাকা: রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির বিদেশ সফরের সময় বাংলাদেশের পক্ষে পাওয়া উপহার ও স্মারক এবার সাধারণ মানুষের সামনে তুলা ধরা হবে। এর জন্য একটি তোষাখানা নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্ভাব্য স্থান হিসেবে দুটি এলাকার নাম প্রস্তাব করেছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি বিদেশে গেলে যে উপহার সামগ্রী পান তা রাখার কোনো নির্দিষ্ট জায়গা নেই। এখন বঙ্গভবনে এগুলো রাখা হয়। সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় বিষয়টি উঠে এলে বিদেশি উপহার সংরক্ষণে তোষাখানা নির্মাণের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রী এ তথ্য জানিয়েছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তাঁরা জানান, প্রধানমন্ত্রী একটি ভবন নির্মাণ করে তোষাখানা করার নির্দেশ দিয়েছেন। সেখানে সাধারণ মানুষ যাতে সহজে প্রবেশ করতে পারে। প্রতিটি উপহারের সঙ্গে দেশ পরিচিতিসহ উপহার পাওয়ার প্রেক্ষাপট তুলে ধরারও নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোষাখানা ভবন নির্মাণের সম্ভাব্য স্থানের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে উপস্থিত এক মন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী বিজয় সরণি এলাকায় বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার ও সামরিক জাদুঘর এলাকায় করা যায় কিনা-তা যাচাই করে দেখতে বলেছেন।

জিএসপি ফিরে পেতে দ্রুত পদক্ষেপের নির্দেশ:
যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে জেনারালাইজড সিস্টেম অব প্রিফারেন্সেস (জিএসপি) সুবিধা ফিরে পেতে নন-ক্যাডার থেকে কারখানা পরিদর্শক নিয়োগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়া বিশেষ এই বাজারসুবিধা ফেরাতে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ দ্রুত গ্রহণেরও নির্দেশ দেন তিনি। মন্ত্রিসভার বৈঠকে সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশ দিয়ে তা দ্রুত বাস্তবায়নের তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রী জানান, সভায় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ জানিয়েছেন, জিএসপি সুবিধা পুনরুদ্ধারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া শর্তের মধ্যে ১১টি বাস্তবায়ন করা হয়েছে। বাকি রয়েছে শ্রমিকদের মানোন্নয়ন এবং গার্মেন্টস পরিদর্শনের জন্য ২০০ জন পরিদর্শক নিয়োগ দেওয়া। এই কাজগুলো দ্রুত করা হবে।

সূত্র আরো জানায়, চলতি বছরের ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ৩ লাখ মানুষের অংশগ্রহণে জাতীয় সংগীত পরিবেশনার উদ্যোগ নিতে মন্ত্রিসভাকে তাগিদ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এ পরিবেশনা যাতে গিনেজ বুক অব রেকর্ডে স্থান পায় সেজন্য পদক্ষেপ নিতেও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রীরা। এছাড়াও বুড়িগঙ্গা দখলমুক্ত করা ও সেখানে ওয়াকওয়ে নির্মাণ এবং তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি ফিল্ম সিটি স্থাপনে কমিটি গঠনের বিষয়েও আলোচনা হয় বলে জানা গেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ