• শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন |

কোমল পানীয় থেকে সাবধান!

drinksস্বাস্থ্য ডেস্ক: কোমল পানীয়’র প্রতি কমবেশি সবারই একটা দুর্বলতা থাকে। বর্তমান সময়ের ফ্যাশনে কোমল পানীয় আমাদের জীবনের অংশ হয়েও দাঁড়িয়েছে। অনেকেই আছেন যারা কিছু খেয়ে কোমল পানীয় পান করেন।

কিন্তু জানেন কী? এই কোমল পানি খেলে শরীরের জন্য উপকার হয় নাকি অপকার হয়? গবেষণা বলছে, উপকারের চেয়ে অপকারটাই বেশি হয়।

এই কোমল পানীয়গুলো শরীরে প্রবেশ করে বিভিন্নভাবে শরীরকে ক্ষতিগ্রস্ত করে তুলতে পারে কয়েক মিনিটের মধ্যে।

এবার আসা যাক কিভাবে শরীরকে ক্ষতিগ্রস্ত  করতে পারে কোমল পানীয়

প্রথম ১০ মিনিট পর : এক গ্লাস কোমল পানীয়ে প্রায় ১০ চামচ চিনি থাকে যেটা অর্গানিজমে মারাত্মক প্রভাব ফেলে। তবে শুধু মাত্র ফসফরিক অ্যাসিডের কারণে বমির উদ্রেক হয় না।

২০ মিনিট পর : রক্তে ইনসুলিনের মাত্রা বেড়ে যায়। লিভারে জমাকৃত শর্করা ফ্যাটে পরিণত হয়।

৪০ মিনিট পর : রক্তে চিনির পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় রক্ত চাপও বেড়ে যায়।

৪৫ মিনিট পর : শরীরে ডোপামিন হরমোনের পরিমাণ বাড়তে থাকে যা মস্তিস্কে উত্তেজনার সৃষ্টি করে। হেরোইনও শরীরে একই প্রক্রিয়ায় কাজ করে।

১ ঘণ্টা পর : ফসফরিক অ্যাসিড শরীরের ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ও জিংকের কার্যকারিতা বাধাগ্রস্থ করে। যেটা পরবর্তীতে মেটাবোলিজম এর উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।

১ ঘণ্টার বেশি সময় পর : অর্গানিজম থেকে পুরোপুরি ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও জিংক বিলীন হয়ে যায় যেগুলো আমাদের হাড় গঠনের প্রধান উপাদান। কোমল পানীয়ে ব্যবহৃত সমস্ত পানি প্রস্রাবের মাধ্যমে আমাদের শরীর থেকে বের হয়ে যায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ