• রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:২৮ অপরাহ্ন |

ঘাতক শেষ বলটি কি বৈধ ছিল?

Criখেলাধুলা ডেস্ক: কেবল আনামুল হক বিজয়েরই নয়। কোটি কোটি ক্রিকেট অনুরাগীদের উদগ্রীব দৃষ্টি সেঁটে ছিল ম্যাচের শেষ বলটির উপর। কারন এ বলটিই হতে পারতো বাংলাদেশের আরেকটি গৌরবগাঁথার এক অনন্য দলিল। কিন্তু তা হয়নি।
তবে হতে পারতো। থিসারা পেরেরার করা ম্যাচের শেষ বলটি ছিল অনেকটাই হাই ফুলটস। ক্রিকেটীয় আইনে কোমর থেকে অধিক উচ্চতার ফুলটস বল নো বল হিসেবে বিবেচিত হবে। আগের দুই বলে পর পর চার হাঁকানো বিজয় অনেকটা কোমরের উপর থাকা ফুলটস বলটি ব্যাটের মাঝখানে নিতে ব্যর্থ হন। ফলে বল সোজা আকাশে উঠে যায়। বোলার পেরেরা তা তালুবন্দী করতে ভুল করেননি।
দুই ফিল্ড আম্পায়ার আনিসুর রহমান এবং শরফুদ্দৌলা কিন্তু তখনো সংশয়ে ছিলেন। তাই তারা শরণাপন্ন হন টিভি আম্পায়ার গাজী সোহেলের। কিন্তু টিভি রিপ্লেতে বল পরিস্কার কোমরের উপর থাকা দেখানো সত্ত্বেও বিতর্ক মুক্ত হওয়াকেই প্রাধান্য দিলেন স্বদেশী আম্পায়ার। বলিষ্ঠ সিদ্ধান্ত নিতে পারলেন না তিনি।
ফলে চমৎকার একটি সম্ভাবনার অপমৃত্যু ঘটলো। ২ রানের বীরের হার বরণ করেই অশ্রু সিক্ত নয়নে মাঠ ছাড়লেন মাশরাফি বাহিনী। একই সঙ্গে বাংলাদেশের কোটি কোটি ক্রিকেটপ্রেমীরাও বেদনাকে সঙ্গী করলেন। দেশের বিভিন্ন স্থানের ক্রিকেটপ্রেমীদের জিজ্ঞাসা, বাংলাদেশ কি বার বার অন্যায় সিদ্ধান্তের বলীই হবে? এই বৃত্ত থেকে কি কখনোই বের হয়ে আসতে পারবে না?
এই প্রশ্নের জবাব ভবিষ্যতের হাতেই তোলা রইলো। তবে এই হারের দুঃসহ স্মৃতি বহুদিন তাড়া করে ফিরবে মাশরাফিদের এবং দেশের আপামর ক্রিকেটপ্রেমীদেরকেও।
বাংলামেইল২৪


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ